• সোমবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৩৪ দুপুর

স্ত্রী হত্যা মামলায় আইনজীবী স্বামী গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ০৯:০৫ রাত নভেম্বর ৬, ২০১৯
অ্যাডভোকেট স্বামী
স্ত্রী হত্যা মামলার আসামি স্বামী অ্যাড. আমির হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ঢাকা ট্রিবিউন

পুলিশ জানায়, ২ নভেম্বর গৃহবধূ সোনিয়া খুন হলে নিহতের বাবা সিরাজুল ইসলাম তার জামাতা আমির হোসেনকে আসামি করে মামলা করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার তাকে গ্রেফতার করা হয়

স্ত্রী সালেহা খাতুন ওরফে সোনিয়া (২২) হত্যা মামলার আসামি অ্যাডভোকেট আমির হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার (৬ নভেম্বর) বেলা ১১টার দিকে যশোর শহরের দড়াটানা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কোতোয়ালি থানার ইনসপেক্টর তাসমীম আলম জানান, ২ নভেম্বর গৃহবধূ সোনিয়া খুন হন। এই ঘটনায় নিহতের বাবা সিরাজুল ইসলাম তার জামাতা আমির হোসেনকে আসামি করে মামলা করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার তাকে গ্রেফতার করা হয়।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, চলতিবছর যশোর সদর উপজেলার ডহেরপাড়া গ্রামের অ্যাড. আমির হোসেনের সাথে লেবুতলা মধ্যপাড়ার সিরাজুল ইসলামের মেয়ে সোনিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর মেয়ের স্বজনরা জানতে পারেন, আমির হোসেন লম্পট প্রকৃতির। বিভিন্ন নারীর সঙ্গে তার অনৈতিক সম্পর্ক ছিলো।

নিহতের চাচা গালিব হোসেনের অভিযোগ, “ঘটনার দিন আমির হোসেনকে তার বাড়ির দ্বিতীয়তলায় একজন নারীর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় সোনিয়া দেখে ফেলে। এনিয়ে সৃষ্ট গোলোযোগের একপর্যায়ে সোনিয়াকে মারপিট ও শ্বাসরোধে হত্যা করে সে। পরে তার ওড়না দিয়ে মরদেহ ঘরের ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে দিয়ে ঘটনাটি ভিন্নখাতে নেওয়ার চেষ্টা করে।”

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জানান, গ্রেফতার আমির হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এদিকে, অ্যাডভোকেট আমির হোসেনের বিরুদ্ধে বিবাহিত স্ত্রীকে অস্বীকার, একজন যৌনকর্মীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৩০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া, তাকে মারধর ও স্ত্রীহত্যা মামলাসহ নারী নির্যাতন সংক্রান্ত বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে কারণ দর্শানোর নোটিস দিয়েছে যশোর জেলা আইনজীবী সমিতি। 

৫ নভেম্বর সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আবু মোর্ত্তজা ছোট স্বাক্ষরিত ওই নোটিসে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এর জবাব দিতে বলা হয়েছে।