• শুক্রবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৬ রাত

বন্যা ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশকে সহযোগিতা করবে চীন

  • প্রকাশিত ০৯:৫২ সকাল নভেম্বর ৭, ২০১৯
বন্যা
ফাইল ছবি

বুধবার পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বন্যা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা হস্তান্তর করেন। এই পরিকল্পনায় যমুনা, গঙ্গা ও পদ্মা নদীর মূলধারা এবং ব্রহ্মপুত্র-যমুনার কয়েকটি শাখা নদীর বন্যা ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বিস্তারিত রয়েছে

বাংলাদেশে বন্যা ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতা হাত বাড়িয়ে দিয়েছে চীন। গঙ্গা বেসিন ও ব্রহ্মপুত্র-যমুনা বেসিনে বন্যা ব্যবস্থাপনার ওপর গবেষণা করে এর পরিকল্পনা আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেছে দেশটি। 

বুধবার (৬ নভেম্বর) পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বন্যা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা হস্তান্তর করেন। 

এই পরিকল্পনায় যমুনা, গঙ্গা ও পদ্মা নদীর মূলধারা এবং ব্রহ্মপুত্র-যমুনার কয়েকটি শাখা নদী (দুধকুমার, ধরলা ও তিস্তা) বন্যা ব্যবস্থাপনা কিভাবে করতে হবে তার বিস্তারিত বর্ণনা রয়েছে। পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় প্রকল্পটির জন্য মোট ব্যয় হয় ২৫.৯৪ কোটি টাকা যেখানে চীন সরকারের কারিগরি অনুদান ২৫.৬৮ কোটি টাকা। 

এই প্রকল্প বাংলাদেশে মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি বন্যা ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে দিক নির্দেশনা তৈরির কাজে বিশেষ সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। 

অনুষ্ঠানে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেন, “চীনের অব্যাহত সহযোগিতা বাংলাদেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করেছে। দু’দেশের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে।” 

এসময় পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ. কে.এম.এনামুল হক শামীম বলেন, “বাংলাদেশ চীনের অকৃত্রিম বন্ধু ও উন্নয়নের বিশ্বস্ত সহযোগী। দুইদেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত ৬টি প্রকল্পের কাজও দ্রুত বাস্তবায়িত হবে।”