• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৮ রাত

বিকেল ৫ টার দিকে সুন্দরবনে আঘাত হানতে পারে ‘বুলবুল’

  • প্রকাশিত ১১:০২ সকাল নভেম্বর ৯, ২০১৯
ঘূর্ণিঝড় বুলবুল
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের গতিপথ। ছবি: সংগৃহীত

‘বুলবুল’ খুলনা অতিক্রম করার সময় খুলনা শহরে ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া এবং ১৪০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে

ঘূর্ণিঝড় ‘‘বুলবুল’’ শনিবার (৯ নভেম্বর) বিকেল ৫ টার দিকে সুন্দরবনে আছড়ে পড়তে পারে। এরপর উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বরগুনা, ভোলা, বরিশালসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোতে তাণ্ডব চালাতে পারে। 

এ সময় খুলনা ও সাতক্ষীরায় ঘণ্টায় ১৩০ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেইসঙ্গে হতে পারে ভারী বৃষ্টিপাত।

খুলনা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. নাজমুল হোসাইন ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘‘বুলবুল’’ শনিবার ৫ টা বা এরপর কিছু পরে উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে। এর প্রভাবে মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে বিপৎসংকেত অব্যাহত রয়েছে। জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের থেকে বেড়ে যেতে পারে।


আরও পড়ুন - ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: মোংলা ও পায়রায় ১০ নম্বর মহা বিপৎসংকেত


জেলা আবহাওয়া বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিরুল আজাদ জানিয়েছেন, সমুদ্র বন্দরের জন্য ১০ নম্বর মহাবিপৎসংকেত ঘোষণা করা হয়েছে। নদী বন্দরের জন্য তিন নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারি সংকেত রয়েছে। খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, বরিশাল, ভোলা, বরগুনা, ঝালকাঠি এবং পিরোজপুর ও এর আশপাশের এলাকা সমুদ্রবন্দরের ১০ নম্বর মহাবিপৎসংকেত এর আওতায় পড়বে।

নড়াইলের বেসরকারি আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. পারভেজ আহমেদ পলাশ জানিয়েছেন, “বুলবুল” খুলনা অতিক্রম করার সময় খুলনা শহরে ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া এবং ১৪০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে। পাশাপাশি মোংলা, বাগেরহাট, পিরোজপুরে ১৩০-১৫০, ঝালকাঠি, বরগুনা, ভোলা, ঝালকাঠি ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ঘন্টায় ১০০ থেকে ১২০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়াসহ ভারী বৃষ্টি হতে পারে।


আরও পড়ুন - ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: ১৩ জেলার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল


তিনি আরও জানান, ঘূর্ণিঝড়টি সুন্দরবনে বেশি তাণ্ডব চালিয়ে মোংলা এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর অতিক্রম করতে পারে। শনিবার বিকেল ৫ টায় সুন্দরবন থেকে তাণ্ডব শুরু করতে পারে ‘‘বুলবুল’’। যা ধারাবাহিকভাবে পরদিন সকাল ৯টা পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থানে চলতে পারে। শনিবার দিবাগত রাত ৯টা থেকে ৩টা পর্যন্ত সময়ের মধ্যে তীব্র আকার ধারণ করতে পারে ঘূর্ণিঝড়টি।