• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৮ রাত

বৃহস্পতিবার বসছে ‘ঢাকা লিট ফেস্টের’ নবম আসর

  • প্রকাশিত ০৩:৪৪ বিকেল নভেম্বর ৫, ২০১৯
লিট ফেস্ট
মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন ঢাকা লিট ফেস্টের নবম আসরের আয়োজকরা। সৈয়দ জাকির হোসাইন/ঢাকা ট্রিবিউন/

বাংলাকে বিশ্বের মঞ্চে তুলে ধরার প্রত্যয় নিয়ে সাহিত্য অঙ্গণের খ্যাতনামা ব্যক্তিত্বদের পদচারণায় শুরু হচ্ছে ঢাকা লিট ফেস্ট-২০১৯

বাংলাকে বিশ্বের মঞ্চে তুলে ধরার প্রত্যয় নিয়ে সাহিত্য অঙ্গণের খ্যাতনামা ব্যক্তিত্বদের পদচারণায় আগামী বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) থেকে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে নবমবারের মতো বসছে তিন দিনব্যাপী   ‘ঢাকা লিটারারি ফেস্টিভ্যাল-২০১৯’এর আসর। 

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান আয়োজকরা। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,  ইংরেজি দৈনিক ঢাকা ট্রিবিউনের সম্পাদক জাফর সোবহান, অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউনের সম্পাদক জুলফিকার রাসেল, সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাশরুর আরেফিন। 

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালক কাজী আনিস আহমেদ, আহসান আকবর ও সাদাফ সাজ।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বুকারপ্রাপ্ত ব্রিটিশ লেখক মনিকা আলী, দুই বাংলার জনপ্রিয় বাংলাভাষী লেখক শংকর, পুলিৎজারজয়ী লেখক জেফরে জেন্টলম্যান, ইতিহাসবিদ উইলিয়াম ডালরিম্পল, ভারতীয় লেখক শশী থারুর, ডিএসসি বিজয়ী এইচএম নাকবি প্রমুখ ফেস্টের এবারের আসরে আলো ছড়াবেন। সঙ্গে থাকছেন সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম,  বাংলাদেশের জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক শাহীন আখতার, কায়সার হক, আসাদ চৌধুরী, সেলিনা হোসেনের মতো গুণী ব্যক্তিত্বরা।

সংবাদ সম্মেলনে সাদাফ সাজ বলেন, “আগামী ৭-৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ সাহিত্য উৎসবে পাঁচ মহাদেশের ১৮টি দেশ থেকে শতাধিক বিদেশি এবং দুই শতাধিক বাংলাদেশি সাহিত্যিক, লেখক, গবেষক, সাংবাদিক, রাজনীতিক অংশ নিচ্ছেন। দেশি-বিদেশি অতিথিদের সঙ্গে সরাসরি সাহিত্যসহ সমাজের বিভিন্ন প্রসঙ্গ নিয়ে আলোচনা-পর্যালোচনার সুযোগ থাকছে জনসাধারণের জন্য।”

তিনি আরও বলেন, “শুধু যে লিট ফেস্টের ৯০টির বেশি সেশন অনুষ্ঠিত হবে তা নয়, এখানে রয়েছে বইয়ের সমারোহ, দেশীয় ঐতিহ্যকে তুলে ধরার উন্মুক্ত মঞ্চ। বই প্রকাশ এবং বইয়ের মোড়ক উন্মোচনও অনুষ্ঠিত হবে এই আয়োজনে। লোকশিল্পীদের উপস্থিতি থাকবে, থাকছেন শিল্পী চন্দনা, মাইজভাণ্ডারি শিল্পীগোষ্ঠী। আমাদের একমাত্র উদ্দেশ্য বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িকতা, গণতন্ত্র ও সাহিত্য বিশ্বের কাছে তুলে ধরা। এছাড়া অংশ নিচ্ছেন ভারতীয় সাংবাদিক প্রেয়াগ আকবর, প্রিয়াঙ্কা দুবে, ফিনিশ সাংবাদিক মিন্না লিন্ডগ্রেন, ডিএসসি পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখক এইচএম নাকভি, ব্রাজিলের কথাসাহিত্যিক ইয়ারা রড্রিগেজসহ অনেকে।”

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সাদাফ বলেন, “ঢাকা লিট ফেস্ট ২০২০ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গ করা হবে। আর এবছর জাতির জনককে নিয়ে থাকছে অসংখ্য সেশন।”

আয়োজনের দ্বিতীয়দিন শুক্রবার প্রদর্শিত হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জীবনীর ওপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র, ‘হাসিনা: এ ডটার্স টেল’। আয়োজনের শেষদিনে উপস্থিত হবেন দুই বাংলার লেখক শংকর। বাংলাদেশের সাহিত্য জগতে স্বনামধন্য ‘জেমকন সাহিত্য পুরস্কার’ও ঘোষণা করা হবে।

ঢাকা ট্রিবিউনের সম্পাদক জাফর সোবহান বলেন, “এটি এমন একটি উৎসব যেখানে বাংলাদেশকে আমরা বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে পারি, বিশ্ব সাহিত্য ও চিন্তাকে বাংলার মানুষের কাছে তুলে ধরতে পারি। ঢাকার প্রাণকেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হওয়া এই আয়োজন ইতোমধ্যে মানুষের হৃদয় কেড়েছে। আশা করি এবারও সাহিত্যামোদীরা হতাশ হবেন না। ঢাকা ট্রিবিউন এই আয়োজনের সঙ্গে থাকতে পেরে ভীষণ গর্বিত।”

বাংলা ট্রিবিউন সম্পাদক জুলফিকার রাসেল বলেন, “এটা যেহেতু একটা উৎসব, তাই এই উৎসবে শুধু সাহিত্যিক নন, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ এখানে আসেন এবং তারা আলোচনা করেন। দেশের বাইরে থেকে যে বরেণ্য ব্যক্তিরা আসেন, তাদের সঙ্গে আমাদের দেশের যারা আছেন বিভিন্ন জেনারেশনের, তারা আলোচনা করার সুযোগ পান। অনুষ্ঠানে বাংলা যে সেশনগুলো আছে সেগুলো আমরা খুব ভালোভাবে অনুসরণ করি।” 

তিন দিনব্যাপী এ আয়োজনে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে পাওয়া ই-টিকিটটি ব্যবহৃত হবে আয়োজনে অংশগ্রহণকারীর প্রবেশপত্র হিসেবে। লিট ফেস্টে প্রবেশের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে ক্লিক করুন এই ঠিকানায়: https://www.dhakalitfest.com/register এছাড়াও লিট ফেস্ট নিয়ে সকল তথ্য জানতে  ক্লিক করুন এই ঠিকানায়: https://www.dhakalitfest.com/2019

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহায়তায় আয়োজনটির টাইটেল স্পন্সর ঢাকা ট্রিবিউন ও বাংলা ট্রিবিউন, প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে রয়েছে সিটি ব্যাংক।