• রবিবার, জুন ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:২৬ রাত

‘ভবিষ্যতের ভূত' নিষিদ্ধের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ

  • প্রকাশিত ০৭:৫৯ রাত এপ্রিল ১১, ২০১৯
‘ভবিষ্যতের ভূত
ভবিষ্যতের ভূত

নিষেধাজ্ঞার ঠিক এক মাস পর গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সিনেমাটি প্রদর্শনের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার আদেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট

'ভূতের ভবিষ্যৎ' খ্যাত পরিচালক অনীক দত্তের সর্বশেষ সিনেমা ‘ভবিষ্যতের ভূত'-এর প্রদর্শনের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করেছিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এ কারণে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট সরকারকে বিশ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে দির্দেশ দিয়েছে। এই বিশ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ পাবেন ছবিটির প্রযোজক এবং সিনেমা হল মালিকরা। আদালত জানায়, কারণ এই বিধিনিষেধ আরোপের মাধ্যমে বক্তব্য ও ভাব প্রকাশের স্বাধীনতার মৌলিক অধিকার ক্ষুন্ন করা হয়েছে। খবর- এনডিটিভি

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু মুক্তি পাওয়ার পরের দিনই তা হল থেকে তুলে নেওয়া হয়।

সিনেমাটি রাজ্যে প্রদর্শন বন্ধ হওয়ার পরে আদালতের দ্বারস্থ হন এর প্রযোজক। প্রযোজকের অভিযোগ ছিল রাজ্য সরকারের নির্দেশেই হল থেকে সিনেমাটি সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল।

এরপর ঠিক এক মাস পর গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সিনেমাটি প্রদর্শনের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার আদেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

মার্চ মাসের ১৫ তারিখ আদালত মমতা ব্যানার্জির সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল, সিনেমা প্রদর্শনের ক্ষেত্রে যেন কোনও রকম বাধা না থাকে তা সরকারকেই নিশ্চিত করতে হবে। প্রযোজক আদালতে জানান, সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার পরে পশ্চিমবঙ্গের স্পেশ্যাল ব্রাঞ্চের তরফ সিনেমার তাদের জানানো হয়েছিল, সিনেমাটি প্রদর্শন করা হলে জনগণের ভাবাবেগে আঘাত লাগতে পারে তা থেকে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।

‘ভবিষ্যতের ভূত' একটি রাজনৈতিক স্যাটায়ার যেখানে একদল ভূত, যাদের মধ্যে একজন রাজনীতিবিদও রয়েছেন তারা উদ্বাস্তু শিবিরে আশ্রয় নেয় এবং সমকালীন সময়ের সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর চেষ্টা করে।