• মঙ্গলবার, আগস্ট ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:২৩ দুপুর

ভেঙে ফেলা হচ্ছে রাজ কাপুরের সাধের স্টুডিও!

  • প্রকাশিত ১২:২২ দুপুর আগস্ট ৯, ২০১৯
রাজ কাপুর স্টুডিও
আরকে স্টুডিও। ছবি: সংগৃহীত

১৯৪৮ সালে মুম্বাইয়ের চেম্বুরে স্টুডিওটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন রাজ কাপুর

একসময় বিশাল স্টুডিওটির প্রতিটি কক্ষে প্রতিধ্বনিত হতো ‘রোল, ক্যামেরা, অ্যাকশন’। হাজার আলোর ঝলকানি, নামীদামী তারকাদের ভিড়, সব মিলিয়ে ছিল বিরাট ব্যাপার। মুম্বাইয়ের পুরনো সেই স্টুডিও ভেঙে সেখানে বানানো হবে মাল্টিপ্লেক্স প্রেক্ষাগৃহ।

বলা হচ্ছে বলিউডের ‘শো ম্যান’খ্যাত কিংবদন্তী অভিনেতা-পরিচালক রাজ কাপুর প্রতিষ্ঠিত আরকে স্টুডিওর কথা। সঠিকভাবে রক্ষণাবেক্ষণ না করতে পারায় গত বছর এটিকে বিক্রি করে দেয় কাপুর পরিবার। এবার সম্পূর্ণ ভেঙে ফেলা হবে রাজ কাপুরের স্মৃতি বিজড়িত স্টুডিওটি।

২০১৭ সালে পুরনো এই স্টুডিওতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্ত হয় বেশকিছু অংশ। তাই বাধ্য হয়েই স্টুডিও ভবনটি বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় কাপুর পরিবার।

১৯৪৮ সালে মুম্বাইয়ের চেম্বুরে স্টুডিওটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন রাজ কাপুর। ‘মেরা নাম জোকার’, ‘সত্যম শিবম সুন্দরম’,‘ববি’-র মতো বিখ্যাত ছবির শুটিং হয়েছে সেখানে। শুটিং ছাড়াও বিভিন্ন বড় বড় উৎসবও ধুমধামের সঙ্গে পালিত হয়েছে সেখানে। ১৯৯৯-তে ঋষি কাপুরের ‘আ অব লট চলে’ সিনেমার পর আর কোনও সিনেমার শুটিং হয়নি স্টুডিওটিতে।

তারপর কেটে গেছে অনেকগুলো বছর। হারিয়ে গেছে আরকে স্টুডিওর জৌলুস।

কিছুদিন আগে রাজ কাপুরের ছেলে ঋষি কাপুর একটি ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানান, “বাধ্য হয়েই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আগুনে পুড়ে যাওয়ার পর স্টুডিওটির পুনর্নির্মাণে যে পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন তা এখনই বিনিয়োগ করা সম্ভব নয়।”