• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:১৭ বিকেল

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’র মুকুট জিতলেন শিরিন আক্তার শিলা

  • প্রকাশিত ১০:০৭ সকাল অক্টোবর ২৪, ২০১৯
মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ
বিজয়ী শিলার মাথায় ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ মুকুট পরিয়ে দেন ১৯৯৪ সালের মিস ইউনিভার্স ও বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন মাহমুদ হোসেইন অপু/ঢাকা ট্রিবিউন

বিজয়ী শিলার মাথায় ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ মুকুট পরিয়ে দেন ১৯৯৪ সালের মিস ইউনিভার্স ও বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন। প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হয়েছেন আনিশা ইসলাম ও দ্বিতীয় রানার্সআপ জেসিয়া ইসলাম

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ-২০১৯’ নির্বাচিত হয়েছেন শিরিন আক্তার শিলা। বুধবার (২৩ অক্টোবর) রাতে বসুন্ধরা কনভেনশনের নবরাত্রী হলে অনুষ্ঠানের চূড়ান্তপর্বে তার নাম ঘোষণা করা হয়।

কয়েক হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে মিস ইউনিভার্স মুকুট ছিনিয়ে নেন তিনি। এই প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হয়েছেন আনিশা ইসলাম ও দ্বিতীয় রানার্সআপ জেসিয়া ইসলাম।

বিজয়ী শিলার মাথায় ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ মুকুট পরিয়ে দেন ১৯৯৪ সালের মিস ইউনিভার্স ও বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন। মাথায় বিজয়ের মুকুট পরে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন শিরিন আক্তার।

শিরিনের বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিজ্ঞানে তৃতীয় বর্ষে অধ্যয়নরত। এর আগে সেরা দশ থেকে পাঁচজন নির্বাচন করা হয়। সেরা পাঁচ হলেন মারিয়া মুমু, জেসিয়া ইসলাম, শিরিন আক্তার শিলা, আলিশা ইসলাম ও আলফা আম্রান।

এবারই প্রথম এধরনের সুন্দরী প্রতিযোগিতা বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হলো। প্রতিযোগিতার মূল স্লোগান ছিল ‘আমার আত্মবিশ্বাস, আমার সৌন্দর্য’। ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ'-এর চেয়ারম্যান রিজওয়ান বিন ফারুক বলেন, আগামী ৮ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে বসবে ‘মিস ইউনিভার্স’ প্রতিযোগিতার ৬৮তম আসর। ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ বিজয়ী শিলা ওই আসরে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন।

এই প্রতিযোগিতার মূল বিচারক হিসেবে ছিলেন সংগীত তারকা ও অভিনেতা তাহসান খান, রূপ বিশেষজ্ঞ কানিজ আলমাস খান, হেরিটেজ ক্র্যাফটসের তুতলি রহমান, রুবাবা দৌলা, ফারজানা চৌধুরী, সাবেক ক্রিকেটার আতাহার আলী খান প্রমুখ।

মাসখানেক আগে থেকে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার নিবন্ধন কাজ শুরু হয়। প্রাথমিক বাছাইয়ে অংশ নেওয়ার জন্য ২৯ আগস্ট পর্যন্ত ১২ হাজার প্রতিযোগী নাম নিবন্ধন করেন। নিবন্ধন শেষে শুরু হয় অডিশন রাউন্ড। এরপর মূল প্রতিযোগিতা। এর মাঝেই ছিল গ্রুমিং ও ফিল্মিং রাউন্ড। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন ধাপ শেষে অনুষ্ঠিত হলো ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে।