• শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৪ রাত

যে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের ভাগ্যে জোটে কফিন!

  • প্রকাশিত ০৫:৫৮ সন্ধ্যা মে ৬, ২০১৯
কফিন কাপ
কফিন জিতে বিজয়ীদের উল্লাস। ছবি: সংগৃহীত

বিজয়ী দলের খেলোয়াড়রা কিভাবে এই পুরষ্কার ভাগাভাগি করে নেবেন, সে বিষয়ে একটু দ্বিধার অবকাশ থেকেই যায়।

কতো ধরনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা যে ছড়িয়ে আছে বিশ্বজুড়ে তার সংখ্যা নির্দিষ্ট করে বলা কঠিন। বিচিত্র সব খেলার ধরণ, বৈচিত্র্যময় তার নাম আর পুরষ্কার। এমনই এক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার নাম কোপা আতাউদেস অর্থাৎ কফিন কাপ। পেরুর জুলিয়াকা শহরে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতাকে বলা হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে ‘বিষণ্নতম’ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা।

এই ফুটসাল প্রতিযোগিতার সেরা তিন দলকে পুরষ্কার হিসেবে দেওয়া হয় কফিন।

তবে জুলিয়াকা কফিন কাপ কোনো সাধারণ ফুটসাল প্রতিযোগিতা নয়। এতে অংশ নেন পেশাদার শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্নকারীরা। আরও ভাল করে বলতে গেলে এরা হচ্ছেন সেই সব মানুষ যারা মৃতদের জন্য সমাধিস্থল প্রস্তুতসহ শেষকৃত্যানুষ্ঠানের যাবতীয় কাজ করে থাকেন। দক্ষিণ-পশ্চিম পেরুর ১২ টি বড় শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্নকারী দলের অংশগ্রহনে অনুষ্ঠিত হয় এই প্রতিযোগিতা।

সে যাই হোক, প্রাণপনে লড়াই করে একটা ‘বাক্স’ জেতার বিষয়টা ঠিক কষ্টের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ বলে মনে নাও হতে পারে। তবে এ কারণে দমে যান না অংশগ্রহনকারীরা। প্রতিবারই তারা সাগ্রহে অংশ নেন। আর ফাইনালে বিজয়ীরা তেরশো ডলার অর্থা বাংলাদেশি মুদ্রায় লক্ষাধিক টাকা মূল্যের কফিন কাঁধে নিয়ে “ওলে, ওলে, চ্যাম্পিয়ন!” গান গেয়ে বিজয়োল্লাস করতে ভোলেন না।

বিশ্বের সবচেয়ে ‘বিষণ্নতম’ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আখ্যা দেওয়া হলেও ভাবখানা এমন যেন, কফিনের জন্য একটা টুর্নামেন্টে লড়ে যাওয়ার বিষয়টি মোটেই হতাশাব্যঞ্জক নয়! এ বছর কফিন কাপে অংশ নেওয়া কয়েকটি দলের স্লোগান ছিল- ‘লাস্ট গুডবাই’, ‘ইটার্নাল ড্রিম’, ‘রেস্ট অ্যান্ড পিস’, ‘রোড টু প্যারাডাইস’ প্রভৃতি।

বিজয়ী দলের পুরষ্কার ছিল সর্বোচ্চ দামের কফিন আর তৃতীয় স্থান অধিকারী দলের কফিনের দাম ছিল ক্রমান্বয়ে কম। এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে পেরে রীতিমতো গর্বিত আয়োজকরা। প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সামনের দিনে আরও দামি কফিন উপহার দেওয়ার।

তবে বিজয়ী দলের খেলোয়াড়রা কিভাবে এই পুরষ্কার ভাগাভাগি করে নেবেন, সে বিষয়ে একটু দ্বিধার অবকাশ থেকেই যায়। স্পন্সরদের ধারণা, কফিনগুলো বিক্রি করে দিয়ে অর্থ ভাগাভাগি করে নেবেন তারা।