• সোমবার, মে ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩৬ রাত

‘সিঙ্গেল’ থাকার পক্ষে সাত যুক্তি

  • প্রকাশিত ০৯:২০ রাত মে ১৪, ২০১৯
সিঙ্গেল
প্রতীকী ছবি পেক্সেলস

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গত ৪০ বছরে একা থাকতে চান এমন মানুষের সংখ্যা বেড়েছে ২৮ শতাংশ।

প্রেমের ফাঁদ এড়ানো কঠিন হলেও একা থাকার আনন্দও একেবারে কম নয়। অনেকেই মনে করেন সঙ্গী ছাড়া জীবন কাটানো প্রায় দুঃসহ। দিনের শেষে বাড়ি ফিরে নরম স্বরে কথা বলা কিংবা ঝগড়ার জন্য হলেও পাশে চাই একজনকে। একা থাকার ভয় তাই মানসিক ভাবেই তাড়া করে বেশির ভাগ মানুষকে।

কিন্তু সাম্প্রতিক কিছু তথ্য ভিন্ন কথা বলছে। পুরো পৃথিবীতেই বাড়ছে একাকী মানুষের সংখ্যা। একা থাকা একটা শিক্ষা, এমনটাই মনে করেন কিছু মনোবিদ ও গবেষক। এক গবেষণায় দেখা গেছে, একাকী থাকার কৌশল শিখে নিতে পারলে করতে পারলে দিনশেষে লাভবান হবেন আপনিই। 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক জরিপের প্রাপ্ত তথ্যমতে, গত ৪০ বছরে একা থাকতে চান এমন মানুষের সংখ্যা বেড়েছে ২৮ শতাংশ। ব্রিটেনের এক জরিপে দেখা গেছে, ২০১১ সালে ৫১ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ সিঙ্গেল ছিলেন।

পাশের দেশ ভারতেও একা থাকা লোকজনের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে বলে জানিয়েছেন দেশটির মনোবিদরা। শুধু গবেষণাই নয়, বিশেষজ্ঞরাও দাবি করছেন, যারা কোনো বিশেষ সম্পর্কে নেই, অর্থাৎ সিঙ্গেল, তারা বেশিদিন সুস্থভাবে বাঁচেন। সিঙ্গেল থাকেলে আরও যেসব উপকার হয় সেগুলোও উঠে এসেছে বিভিন্ন গবেষণা ও জরিপে-

- ‘আমেরিকান ব্যুরো অফ লেবার স্ট্যাটিসটিকস’-এর একটি সমীক্ষা অনুযায়ী, সিঙ্গেলরা সামাজিক সম্পর্ক বজায় রাখতে বেশি দক্ষ হয়। এদের সঙ্গে বন্ধুদের সম্পর্কও ভাল থাকে।

- বিশেষজ্ঞদের মতে, বন্ধুদের সম্পর্ক বজায় রাখার ফলে এদের মানসিক অবস্থাও ভাল থাকে। সাংসারিক নানা জটিলতায় পড়তে হয় না, নিজেদের মনের মতো করে দিনযাপন করতে পারেন বলে মানসিক চাপ থেকে তারা মুক্ত থাকেন।

- ‘জার্নাল অফ ফ্যামিলি ইস্যু’-র একটি সমীক্ষা আবার মজার এক তথ্য সামনে এনেছে। তাদের মতে, যাদের সঙ্গী আছেন তাদের তুলনায় সিঙ্গলদের শারীরিক ওজন কম থাকে। ‘ওয়েস্টার্ন ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি’-র আর একটি সমীক্ষার অবশ্য দাবি, সম্পর্ক বিচ্ছেদের পরে অনেকেরই অনেকটা ওজন কমে যায়।

- জরিপ বলছে, যাদের কোনো সঙ্গী নেই, তাদের ঘুম ভাল হয়। বাড়তি চাপ, নানা দায়িত্ব। অন্যের জন্য উদ্বেগ এ সব থাকে না বলে তাদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য ভাল থাকে।

- কোনো সম্পর্কে না থাকলে, নিজের সঙ্গে সময় কাটানোরও সুযোগ বেশি থাকে। সম্পর্কের ঝুট-ঝামেলা থেকে দূরে রেখে নিজের শখও বজায় রাখতে পারেন।

- একা থাকার ফলে নিজের কাজটুকু গুছিয়ে ফেলেই ঘন ঘন বেড়ানোর সুযোগ থাকে। পরিবারের সকলের ছুটি ও কাজের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হয় না। তাই গবেষণার মতে, একা থাকলে ঘুরে বেড়ানোর মধ্যে দিয়ে যে আরাম ও আনন্দ পাওয়া যায়, তারও সবটুকুই লুফে নিতে পারেন সিঙ্গেলরা।

- একা মানুষরা একটু বেশি সাবধানী হন বলে দাবি ‘আমেরিকান স্কুল অব মেডিসিন’-এর। সঙ্গে কেউ তাকেন না বলেই তারা নিজের প্রতি একটু বেশি যত্নবান হন, অসুস্থতার সময় বা অন্য কোনো দরকারে কীভাবে তা সামাল দেবেন, সে সব নিয়ে অনেক আগে থেকেই পরিকল্পনা করে রাখেন।