• শনিবার, আগস্ট ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:০৬ রাত

‘চুমু বিতর্ক’ পিছু ছাড়ছেই না দুতার্তের

  • প্রকাশিত ০৫:৩৮ সন্ধ্যা জুন ২, ২০১৯
রদ্রিগো দুতার্তে
ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে। ছবি: সংগৃহীত

সুন্দরী নারীদের সান্নিধ্যই তার সমকামিতাকে ‘সারিয়ে তুলেছে’ বলে দাবি ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্টের

মঞ্চে ডেকে এনে পাঁচজন নারীকে চুম্বন! নিজের রেকর্ড নিজেই ভাঙলেন ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তের। গত বার সোল-এ এক বিবাহিত মহিলাকে চুমু খেয়ে হইচই বাধিয়েছিলেন। এবার জাপানে গিয়ে ওখানকার ফিলিপিনো বাসিন্দাদের সঙ্গে দেখা করে মঞ্চে ডেকে নিলেন মহিলাদের। সঙ্গে এ-ও দাবি করলেন, সুন্দরী নারীদের সান্নিধ্যই তাঁর সমকামিতাকে ‘সারিয়ে তুলেছে’ বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে আনন্দবাজার।

আনন্দবাজারের ওই প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়েছে, “বৃহস্পতিবার দুতের্তে যখন এই সব করছেন, মঞ্চে আসীন তাঁর প্রেমিকা  স্বয়ং। দুতের্তের তাতে ভ্রূক্ষেপ নেই।” সোজা চুমু খেতে আহ্বান জানান তিনি। চারজন নারী এগিয়ে গিয়ে প্রেসিডেন্টের গালে চুমু এঁকেও দেন।” 

এই সবের আগেই বক্তৃতা করার সময় দুতের্তে বলেন, তিনি এক সময় সমকামী ছিলেন। সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে দেখা হওয়ার পর থেকে তিনি আবার ‘পুরুষ’ হয়ে যান। সমকামিতার সঙ্গে পুরুষ হওয়ার কী সম্পর্ক, সে প্রশ্ন অবশ্য কেউ করেননি। তাঁর প্রতিপক্ষ সেনেটর আন্তোনিও ট্রিলানেসকেও সমকামী বলে কটাক্ষ করেন দুতার্তে। বলেন, ‘‘ট্রিলানেস আর আমি তো একই রকম। কিন্তু আমি নিজেকে সারিয়ে তুলেছি।’’ এক সময় সমকামী বিয়ের পক্ষেও মত দিতেন দুতার্তে। পরে শুধু একসঙ্গে থাকার অধিকারই স্বীকৃত হয় ফিলিপিন্সে।