• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩১ রাত

হাঁটু-কোমরে ব্যথা নিয়েও বেরিয়ে পড়ুন অভিযানে!

  • প্রকাশিত ১২:১৩ দুপুর সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯
রাঙ্গামাটি
কাপ্তাই লেক, রাঙ্গামাটি। ছবি: সংগৃহীত

আধুনিক জীবনযাপনের চাপে মাঝ বয়সেও আজকাল হাড়ের অসুখে পড়ে যাচ্ছেন অনেকেই। তবে যাবতীয় শারীরিক সমস্যাকে জয় করে পাহাড়িপথের হাতছানি কিংবা সমুদ্রস্নানের আনন্দ দুই-ই নেওয়া সম্ভব বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা

বাড়িতে থাকা ব্যস্ত সদস্যরাই শুধু নন, আধুনিক জীবনযাপনের চাপে মাঝ বয়সেও আজকাল হাড়ের অসুখে পড়ে যাচ্ছেন অনেকেই। আবার বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হাঁটু বা কোমরের ব্যথাকেও এড়িয়ে চলতে পারেন না বেশিরভাগ মানুষই। কেউবা ব্যথা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সারাবছরই চিকিৎসকদের পরামর্শে চলেন। 

তবে যাবতীয় শারীরিক সমস্যাকে জয় করে পাহাড়িপথের হাতছানি কিংবা সমুদ্রস্নানের আনন্দ দুই-ই নেওয়া সম্ভব বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। অবশ্য, সেখানে তাদের জন্য রয়েছে কিছু বাড়তি সতর্কতা।

বেড়ানোর সাবধানতা

#) বেড়াতে যাওয়ার আগে অবশ্যই সম্পূর্ণ চেক আপ করান ও চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে সচেতনতা অবলম্বন করুন।

#) বেড়াতে গেলেও প্রয়োজনীয় ওষুধ, নি ও অ্যাঙ্কল ক্যাপ, বেল্ট ও চিকিৎসকের পরামর্শ মতো হাড়ের সাপ্লিমেন্টস সঙ্গে রাখতে হবে।

#) ফ্যাশন করতে হবে হাড় বাঁচিয়ে। নরম সোলের জুতো, গ্রিপ ও স্ট্র্যাপ-সহ জুতো পরাই উচিত। হাড়-কোমরে সমস্যা থাকলে অবশ্যই হিল এড়াতে হবে।

#) চেয়ারে বসার সময় পায়ের পাতা যেন মাটিতে ঠেকে থাকে।

#) শরীরচর্চা ও হাঁটা-হাঁটি বাদ দিলে চলবে না।

#) ঘরে পরার চটি যেন স্লিপারি না হয় সে খেয়াল রাখতে হবে।

#) ব্যথার রোগীর জন্য ট্রেনে লোয়ার বার্থ বুকিং করবেন। গাড়িতেও কম ঝাঁকুনি হবে এমন সিটে বসান।

#) খুব অসুস্থ হলে হুইল চেয়ার বুক করে রাখুন আগে থেকেই।

#) পাহাড়িপথে অল্প রাস্তা হাঁটলেও কষ্ট হতে পারে। তাই ব্যথা কমানোর স্প্রে, ওষুধ সঙ্গে রাখুন। বরফ সেঁক দেয়া সম্ভব হলে রাতে ঘুমনোর আগে আইসপ্যাক দিন।

#) অশান্ত সমুদ্রে নামবেন না, পাড়ে দাঁড়িয়ে বা অল্প নেমেও আনন্দ করতে পারেন। বড় ঢেউয়ের আঘাত এড়াতে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে।

#) সাবধানে হাঁটাচলা করতে হবে, তবু চোট পেলে বেদনানাশক ওষুধ ও বরফ সেঁকে আস্থা রাখুন।