• বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪০ রাত

ইতালীর নিষেধাজ্ঞায় ভূমধ্যসাগরে ভাসছে ছয় শতাধিক অভিবাসী

  • প্রকাশিত ০৯:১৯ রাত জুন ১১, ২০১৮
italy-1528730081725.jpg
ছবিঃ এএফপি

অভিবাসন প্রত্যাশি ৬২৯ জনকে ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধারের পর নিজেই বিপদে পড়েছে উদ্ধারকারী জাহাজ অ্যাকুয়ারিস ইতালীর বন্দরে ভিড়বার অনুমতি চাইলে তা নাকোচ করে দিয়েছেন দেশটির নতুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনি। লিবিয়ার উপকূল থেকে উদ্ধারকৃত ব্যক্তিদের নিয়ে জাহাজটি এখন মধ্যসাগরে ভাসমান। বিবিসির সূত্রমতেখ্রিস্টান ডানপন্থী রাজনৈতিক নেতা সালভিনি ওই অভিবাসীদের গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছিলেন জাহাজটির নিকটবর্তী দ্বীপরাষ্ট্র মাল্টাকে। তবে সে আহ্বানে সাড়া দেয়নি মাল্টা।

উদ্ধারকারী জাহাজটির মালিকানা জার্মানির সাহায্যসংস্থা এসওএস মেডিটেরানির। মাল্টার বক্তব্য, যেহেতু লিবিয়ার উপকূল থেকে এই অভিবাসীদের উদ্ধার করা হয়েছে, সুতরাং দায়িত্বটি ইতালির উপরেই বর্তায়। এসওএস মেডিটেরানি জানায় তাদের জাহাজ অ্যাকুয়ারিসকে ইতালির মেরিটাইম রেসকিউ কোঅর্ডিনেশন সেন্টার থেকে একই স্থানে অপেক্ষা করতে বলা হয়েছে। জাহাজটি বর্তমানে ইতালি থেকে ৩৫ নটিকাল মাইল ও মাল্টা থেকে ২৭ নটিকাল মাইল দূরে অবস্থান করছে। 

রয়টার্স এর কাছে সংস্থাটির মূখপাত্র মাথিলদে অভিল্লাইন বলেছেনআমরা প্রত্যাশা করি কঠিন অবস্থা থেকে উদ্ধারকৃত অভিবাসীদের নিরাপদে কোনও একটা বন্দরে নামিয়ে দেওয়া সম্ভব হবে।

নির্বাচনের আগে সালভেনির দলের দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতেই অভিবাসীদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থানে থাকছে সরকার। গত শনিবারে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি জনানমানব পাচার বন্ধ করতে হবে। আর যেসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অনুমোদনহীন অভিবাসীদের দিয়ে কাজ করায় তাদেরকেও না বলে দিতে হবে। তিনি আরও যুক্ত করেনমাল্টা কাউকে নেয় না। ফ্রান্স অভিবাসীদের সীমানা থেকেই বের করে দেয়। আর স্পেন তো সীমান্তে গুলি চালায়। এছাড়াও সমুদ্রে ডুবন্ত এসব অভিবাসীদের উদ্ধারকর্মী সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছেন তিনি। তার মতে, এসব সংগঠন মানব পাচারকারীদের সহযোগীতা করছে।

জাহাজে থাকা মানুষেরা বেশিরভাগই সাব-সাহারান এলাকার বাসিন্দা যাদের মধ্যে প্রায় ৪০০ জনকে উদ্ধার করেছে ইতালির নৌবাহিনীকোস্টগার্ড ও কিছু বাণিজ্যিক জাহাজ। যার মধ্যে আছে অভিভাবকহীন ১২৩ জন শিশু। ১১ জন খুবই ছোট শিশু ও ৭ জন গর্ভবতী নারী রয়েছেন ওই জাহাজে। শিশুগুলোর বেশিরভাগই ইরিত্রিয়াঘানানাইজেরিয়া ও সুদানের বাসিন্দা।

উদ্ধারকারী জাহাজ অ্যাকুয়ারিসে কর্তব্যরত আলেজান্ড্রো পোরো ইতালীর টিভি চ্যানেল স্কাই টিজি২৪কে জানিয়েছেনকোন বন্দরে তারা নোঙর করতে পারবেন সেটা দ্রুত নিষ্পত্তি করতে হবে। জাহাজে প্রায় অর্ধ্বশতাধিক অভিবাসীকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছিল।