• শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৫২ রাত

ক্রিমিয়ায় কারিগরি কলেজে বিস্ফোরণ, নিহত ১৮

  • প্রকাশিত ০৮:০১ রাত অক্টোবর ১৭, ২০১৮
Crimea Bomb Attack
ক্রিমিয়ায় কারিগরি কলেজে বিস্ফোরণ, নিহত ১৮। ছবি: সৌজন্যে

হতাহতদের অধিকাংশই কারিগরি কলেজটির শিক্ষার্থী

রাশিয়া নিয়ন্ত্রিত ক্রিমিয়ার একটি কলেজে বোমা বিস্ফোরণে অন্তত ১৮ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন আরও অনেকে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রাশিয়া যেখানে ক্রিমিয়ায় সঙ্গে যোগাযোগের জন্য সেতু তৈরি করেছে, সেই কের্চ অঞ্চলের কারিগরি কলেজে বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটেছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র বরাতে জানা গেছে, প্রাথমিকভাবে ঘটনাটিকে গ্যাস বিস্ফোরণ মনে করা হয়েছিল।

কিন্তু রাশিয়ার ন্যাশনাল গার্ড কর্মকর্তারা বিস্ফোরণের ঘটনাটিকে ‘সন্ত্রাসী আক্রমণ’ হিসেবেই আখ্যা দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে সের্গেই মেলিকভ জানিয়েছেন, এক্সপ্লোসিভ ডিভাইসের মাধ্যমে বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটানো হয়েছে।

অন্যদিকে স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাতে জানা গেছে, হতাহতদের অধিকাংশই কারিগরি কলেজটির শিক্ষার্থী। আহতদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই সোইগু বলেছেন, “প্রয়োজনের জন্য আহতদের উদ্ধার করতে চারটি সামরিক বিমানও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সামরিক হাসপাতালও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। কলেজটির পরিচালক বলেছেন, “অপরিচিত সশস্ত্র ব্যক্তিরা ভবনে ঢুকে পড়েছিল। তিনি এই আক্রমণকে ২০০৪ সালের বেসলান আক্রমণের সঙ্গে তুলনা করেছেন, ওই হামলায় প্রায় ৩৩০ জন প্রাণ হারিয়েছিলেন।  

তবে ক্রিমিয়ার রুশ সমর্থিত নেতা সের্গেই আকসেনভ বার্তা সংস্থা তাসকে বলেছেন, “বিস্ফোরনের পর গোলাগুলির যে খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে তা সত্যি নয়। বর্তমানে সেখানকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। হতাহতদের স্মরণে তিনদিনের শোকও ঘোষণা করেছেন তিনি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বিস্ফোরণের পরপরই ওই এলাকার স্কুল এবং প্রাথমিক স্কুলগুলো খালি করে ফেলা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, আনুষ্ঠানিকভাবে ইউক্রেনের অংশ হলেও ২০১৪ সালে অঞ্চলটি দখল করে নেয় রাশিয়া। পরে এক ভোটের মাধ্যমে নিজেদের মধ্যে সংযুক্ত করে নিলেও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ওই ভোটকে বিতর্কিত বলে আখ্যা দেয়।