• মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৫:২০ সন্ধ্যা

নিউজিল্যান্ডে রাষ্ট্রীয়ভাবে জুম্মার নামাজ সরাসরি সম্প্রচারিত

  • প্রকাশিত ১১:৩৯ সকাল মার্চ ২২, ২০১৯
ক্রাইস্টচার্চ জুম্মা
শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের সেই মসজিদ থেকে স্থানীয় সময় দেড়টায় জুম্মার নামাজ রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ও রেডিওতে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। ছবি:এএফপি

সে সময় রাষ্ট্রীয়ভাবে দুই মিনিট নীরবতাও পালন করা হয়

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে বন্দুকধারীর হামলার এক সপ্তাহের মাথায় আজ নামাজের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে আল নূর মসজিদসহ লিনউডের আরেকটি মসজিদ। সেইসাথে শুক্রবারের জুম্মার নামাজ দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছে। মুসলিমদের প্রতি এভাবেই সংহতির নজির স্থাপন করলো শান্তির দেশ হিসেবে খ্যাত নিউজিল্যান্ড। একইসঙ্গে রাষ্ট্রীয়ভাবে দুই মিনিট নীরবতাও পালন করা হয়েছে।

৫ মার্চ (শুক্রবার) ২৮ বছর বয়সী অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন ট্যারান্ট নামের এই হামলাকারীর লক্ষ্যবস্তু হয় নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুইটি মসজিদ। শহরের হাগলি পার্কমুখী সড়ক ডিনস এভিনিউয়ের আল নুর মসজিদসহ লিনউডের আরেকটি মসজিদে তার বর্বরোচিত হামলার শিকার হয় অর্ধশত মানুষ।

এই হামলায় আল নুর মসজিদের হামলায় নিহত হন ৪৩ জন। হামলাকারীর বুলেটের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত সেই মসজিদে গত শুক্রবার তখন নামাজের প্রস্তুতি চলছিল। এই ঘটনার পর সেখানে এই এক সপ্তাহ চলল সংস্কারের কাজ।

শুক্রবার সেই মসজিদ থেকেই স্থানীয় সময় দেড়টায় জুম্মার নামাজ রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ও রেডিওতে সম্প্রচার করা হয়। এরপর পালন করা হয় দুই মিনিটের নীরবতা।

আল নূর মসজিদের সামনে হেগলি পার্কে জড়ো হন হাজার হাজার মানুষ। নেতৃত্বের এক অনন্য দৃষ্টান্ত সৃষ্টিকারী দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডানও সেসময় সেখানে যোগ দেন। তিনি বলেন, "আপনাদের সঙ্গে পুরো নিউজিল্যান্ডই ব্যাথিত। আমরা সবাই এক"।

উল্লেখ্য, দেশটির অন্যান্য মসজিদও সে দেশের সব ধর্মালম্বী মানুষের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। সেই সাথে জানানো হয়েছে, মসজিদগুলোর সামনে ভালোবাসা ও সুরক্ষার প্রতীক হিসেবে মানববন্ধন করবেন নিউজিল্যান্ডবাসী।