• শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৪ রাত

জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ০৩:৪৭ বিকেল এপ্রিল ১১, ২০১৯
জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ
ছবি: রয়টার্স

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর হওয়ার আশঙ্কায় ইকুয়েডর দূতাবাস ছাড়তে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন অ্যাসাঞ্জ। 

উইকিলিক্স এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে লন্ডনের ইকুয়েডর দূতাবাস থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিবিসি'র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সুইডেনে যৌন হয়রানির অভিযোগে গ্রেফতার এড়াতে সাত বছর আগে দূতাবাসে আশ্রয় নিয়েছিলেন অ্যাসাঞ্জ। ওই মামলাটি এখনও চলমান।

ব্রিটিশ পুলিশ জানিয়েছে, আদালতে উপস্থিত হতে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট লেনিন মরেনো জানান, বারবার আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করায় তার দেশ অ্যাসাঞ্জের রাজনৈতিক আশ্রয় বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে ইকুয়েডরের এমন সিদ্ধান্তকে বেআইনি বলে উল্লেখ করে একটি টুইট করেছে উইকিলিকস।

অ্যাসাঞ্জের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ টুইটারে বলেন, "আমি নিশ্চিত করছি জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ এই মুহূর্তে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে এবং যুক্তরাজ্যে যথাযথভাবে আইনি প্রক্রিয়ার সম্মুখীন হচ্ছেন।"

কোনও কিছুই আইনের ঊর্ধ্বে নয় উল্লেখ করে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে হস্তান্তর করায় ইকুয়েডরকে ধন্যবাদ জানান ব্রিটিশ মন্ত্রী।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর হওয়ার আশঙ্কায় ইকুয়েডর দূতাবাস ছাড়তে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন অ্যাসাঞ্জ।

স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড জানিয়েছে, ইকুয়েডর সরকার অ্যাসাঞ্জের রাজনৈতিক আশ্রয় বাতিল করে গ্রেফতার করার জন্য তাদেরকে দূতাবাসে ডেকে পাঠায়।

এক বিবৃতিতে ব্রিটিশ পুলিশ জানিয়েছে, আদালতে তোলার আগে উইকিলিকস সহ-প্রতিষ্ঠাতাকে সেন্ট্রাল লন্ডন পুলিশ স্টেশনের হাজতে রাখা হবে।

দুই দেশের মধ্যে বিস্তারিত আলাপ-আলোচনার পরই অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্যার অ্যালান ডানকান।