• বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:১২ রাত

`মানুষ যতটা চায় ততটা তাকে ধূমপান, মদ ও মাংস খেতে দিন'

  • প্রকাশিত ০৭:০৪ রাত মে ৮, ২০১৯
মদ্যপান
ছবি: সংগৃহীত

নরওয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পরই এ মন্তব্য করেন সিলভি লিসথাগ

মানুষ যতটা চায় ততটা মদ্যপান, ধূমপান এবং মাংস খেতে উদ্বুদ্ধ করার পরামর্শ দিয়েছেন নরওয়ের নতুন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিলভি লিসথাগ। শুক্রবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পরই এ মন্তব্যের জন্য তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। 

তিনি বলেন, "আমি কোনো নৈতিক পুলিশ হতে চাইনা এবং জনগণকে বলতে চাইনা কিভাবে তাদের জীবন যাপন করা উচিত। কিন্তু আমি জনগণকে সহায়তা করতে চাই আরও তথ্য পেতে যাতে করে সে তার পছন্দ চূড়ান্ত করতে পারে।"

তিনি বলেন, "জনগণ যতটা চায় ততটা তাদের ধূমপান ও ড্রিংক করতে এবং রেড মিট বা লাল মাংস খেতে দেয়া উচিত। কর্তৃপক্ষ হয়তো তাদের জানাতে চায় কিন্তু মানুষ নিজেই জানে যে কোনটা তাদের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত আর কোনটা স্বাস্থ্যসম্মত নয়।" তিনি আরো বলেন, “সরকার শুধু তথ্য দিয়ে মানুষকে সহায়তা করতে পারে। এজন্য একটি ধুমপান সংক্রান্ত নীতিমালা থাকা উচিত যেটা তরুণদের ধূমপানে উৎসাহিত করতে বাধা দেবে।”

অভিবাসন বিরোধী হিসেবে পরিচিত এই রাজনীতিক দায়িত্বগ্রহণের পর আরও বলেন, “আমি মনে করি অনেক ধূমপায়ীই নিজেদের বহিরাগত মনে করে। তারা অধিকাংশই মনে করে তাদের গোপনেই থাকা উচিত। যদিও ধূমপান ভালো নয় কারণ এটি শরীরের জন্য ক্ষতিকর। কিন্তু তারপরেও প্রাপ্তবয়স্কদেরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে তারা কি চায়।”

তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এসব মন্তব্য নিয়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে। এ প্রসঙ্গে, নরওয়ের ক্যান্সার সোসাইটির সেক্রেটারি জেনারেলের আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রী মন্তব্যগুলো জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে।

তবে বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানায়, লিসথাগের জন্য অবশ্য বিতর্কিত মন্তব্য নতুন কোনো বিষয় নয়। এর আগে গত বছরই তিনি পদত্যাগে বাধ্য হয়েছিলেন তার একটি বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে।