• সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:১৪ দুপুর

ফেসবুকে বিতর্কের জেরে শ্রীলঙ্কায় মসজিদে হামলা

  • প্রকাশিত ০১:৫২ দুপুর মে ১৩, ২০১৯
শ্রীলঙ্কা
ছবি: রয়টার্স

এদিকে ফেসবুকে বিতর্কের জেরে মসজিদে হামলার পর ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপসহ বেশ কয়েকটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে

শ্রীলঙ্কার খ্রিষ্টান সংখ্যাগরিষ্ঠ উপকূলীয় শহর চিলাউয়ে ফেসবুকে বিতর্কের জেরে  এক মুসলিমকে পেটানো এবং একই সাথে ওই এলাকার মসজিদে হামলার পর ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপসহ বেশ কয়েকটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও সোমবার সারারাত শহরটিতে কারফিউ জারি করে দেশটির সরকার বলেও এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে রয়টার্স। 

প্রসঙ্গত,  ৩৮ বছর বয়সী আব্দুল হামিদ মোহাম্মদ হাসমার ফেসবুকে একটি কমেন্ট করেন। কমেন্টটিকে সাধারণ জনগণ ‘ধর্মীয় উষ্কানি’ হিসেবেই মনে করছেন। কমেন্টের পরই ওই অঞ্চলটিতে বিতর্ক শুরু হয়। তবে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ফেসবুকে কমেন্টদাতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে রবিবার রাত থেকে সোমবার পর্যন্ত মুসলিম মালিকানাধীন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার অভিযোগে সন্দেহভাজন একটি দলকে কুরুনেগালা জেলা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এদিকে, তাদের মুক্তির দাবিতে বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ বেশ কয়েকটি জেলা থেকে প্রতিবাদ করা হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাতে কারফিউ জারি করে পুলিশ।

এদিকে, শ্রীলঙ্কার শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর ডায়লগের পক্ষ থেকে এক টুইট বার্তায় বলা হয়েছে, ভাইবার, ইমো, স্ন্যাপচ্যাট, ইনস্টাগ্রাম ও ইউটিউবও পরবর্তী নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২১ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার গির্জা ও হোটেলে একযোগে সিরিজ বোমা হামলা চালানো হয়। এ ঘটনায় ২৫০ জনের বেশি নিহত হন। এ ঘটনার পর থেকেই দেশটিতে অবস্থিত মুসলিমরা তাদের ওপর বিভিন্ন নির্যাতনের অভিযোগ করে আসছিলেন।