• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০০ রাত

স্বামীকে 'মোটা হাতি' বলায় বিচ্ছেদের আদেশ দিল্লী হাইকোর্টের

  • প্রকাশিত ০৭:০৩ রাত জুন ১৬, ২০১৯
মোটা
প্রতীকী ছবি/ এএফপি

ওই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে যৌন আকাঙ্ক্ষা পূরণে ব্যার্থ হওয়ারও অভিযোগ আনেন তার স্ত্রী।

স্বামীকে 'মোটা হাতি' বলে সম্বোধন করা 'বৈবাহিক জীবনের সম্প্রীতির জন্য ক্ষতিকর' উল্লেখ করে তা বিচ্ছেদের জন্য যথেষ্ঠ বলে রুল জারি করেছেন ভারতের দিল্লী হাইকোর্ট।   

এ বিষয়ে আদালতের বিচারপতি বিপিন সাঙ্ঘি বলেন, স্থুল আকৃতির হলেও স্বামীকে 'হাতি' বা 'মোটা হাতি' বলা স্বামীর আত্মসম্মানের বিপক্ষে যায়।  

সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, ওই স্বামী জানান, তিনি স্থুল হওয়ার কারণে তার স্ত্রীর 'নিষ্ঠুরতার' শিকার হয়েছেন। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে যৌন আকাঙ্ক্ষা পূরণে ব্যার্থ হওয়ারও অভিযোগ আনেন তার স্ত্রী।  

এর জের ধরে ওই ব্যক্তি ২০১২ সালে স্থানীয় আদালতে বিচ্ছেদের আবেদন করলে তা মঞ্জুর করা হয়। পরে ওই বিবাহ বিচ্ছেদের আদেশকে চ্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে আবেদন করেন ওই ব্যাক্তির স্ত্রী। গত ২২ মার্চ উচ্চ আদালত নিম্ন আদালতের রায়কে সমর্থন করে তা বলবৎ রাখে। 

আদালতে ওই স্বামী অভিযোগ করেন, তার স্ত্রী তাকে কেরোসিন দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়া ও তার পরিবারকে যৌতুক মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দেন। এছাড়া ২০০৫ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি শারীরিক সম্পর্ক করতে চাইলে তার গোপনাঙ্গ স্ত্রী আঘাতে আহত হয় বলেও জানান তিনি।