• সোমবার, আগস্ট ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৪৩ সকাল

জাতিসংঘ: এক দশকের মধ্যেই জনসংখ্যায় বিশ্বে প্রথম হবে ভারত

  • প্রকাশিত ১০:২০ রাত জুন ১৯, ২০১৯
জনসংখ্যা
২০২৭ সালের মধ্যে জনসংখ্যায় বিশ্বে প্রথম হবে ভারত। ছবি: সংগৃহীত

২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের মোট জনসংখ্যা ৯৭০ কোটি হবে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়

আগামী এক দশকের মধ্যেই ভারত জনসংখ্যায় বিশ্বে প্রথম স্থানে চলে যাবে। বর্তমানে সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যার দেশ চীনকে ছাড়িয়ে ভারত সে জায়গা দখল করবে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদন। 

পৃথিবীর প্রায় ৭৭০ কোটি জনসংখ্যার ৩৭ শতাংশই বর্তমানে যৌথভাবে রয়েছে চীন ও ভারতে। চীনের বর্তমান জনসংখ্যা ১৪০ কোটি ও ভারতের ১৩০ কোটি। 

তবে ২০২৭ সালের মধ্যে ভারতের জনসংখ্যা চীনের চেয়ে বেশি হয়ে যাবে। সোমবার (১৭ জুন) জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড পপুলেশন প্রসপেক্টস প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে। ২০৫০ সালের মধ্যে ভারত ও চীনের জনসংখ্যার ব্যবধান আরও বাড়বে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৯ থেকে ২০৫০ সালের মধ্যে ৫৫ টি দেশ ও কিছু অঞ্চলের জনসংখ্যা ১% কমবে। এর কারণ হিসেবে বলা হয়েছে প্রজননের স্বল্প মাত্রা ও কিছু কিছু ক্ষেত্রে বড় সংখ্যক অভিবাসন। 

এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কমবে চীনের। এই সময়ের মধ্যে দেশটির জনসংখ্যা কমবে ৩০ কোটি ১৪ লক্ষ। ফলে ২০৫০ সালে চীনের জনসংখ্যা হবে ১১০ কোটি আর ভারতের হবে ১৫০ কোটি। 

২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের মোট জনসংখ্যা ৯৭০ কোটি হবে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। 

জাতিসংঘ এ প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে জনসংখ্যার প্রবণতা এবং মানুষের প্রজনন, মৃত্যুহার ও অভিবাসনের তথ্য ব্যবহার করে।  

উল্লেখ্য, ১৯৫০ সালে, অর্থাৎ জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার ৫ বছর পর পৃথিবীর জনসংখ্যা ছিল ২৬০ কোটি।