• বুধবার, জুলাই ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৪ রাত

ভারতে ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় এবার মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটুনি

  • প্রকাশিত ১১:৫৯ সকাল জুলাই ৫, ২০১৯
মারধর
বেধড়ক মারধরের অভিযোগ। ছবি: প্রতীকী

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) কিশোরটির বাবা পুরুলিয়ার নিতুড়িয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ সুপার তদন্ত হচ্ছে বলে জানালেও ঘটনার ২৪ ঘণ্টা পরেও কেউ গ্রেফতার হয়নি

ভারতের পুরুলিয়ায় ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় এবার ১১ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠেছে।  ‍বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) কিশোরটির বাবা নিতুড়িয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ সুপার তদন্ত হচ্ছে বলে জানালেও ঘটনার ২৪ ঘণ্টা পরেও কেউ গ্রেফতার হয়নি।

ভুক্তভোগী কিশোরের অভিযোগ, বুধবার (৩ জুলাই) এক বন্ধুকে বাসে তুলে দিয়ে মাদ্রাসায় ফেরার সময় পথ আটকায় চার যুবক। প্রথমে পরিচয় জানতে চায় এবং পরে ‘জয় শ্রীরাম’ বলার জন্য চাপাচাপি করে।

তার অভিযোগ, ‘‘ওদের কথা না শোনায় মাটিতে ফেলে লাথি-ঘুষি মারে। কাকুতি-মিনতি করলেও শোনেনি। পরে ওদের একজন বাকিদের সতর্ক করে বলে, ‘খারাপ কিছু হলে ফেঁসে যাব’। তারপর ওদের মার থামে।’’

এঘটনায় তৃণমূলের জেলা সভাপতি শান্তিরাম মাহাতো দাবি করে বলেন, ‘‘উগ্র হিন্দুত্ববাদের জিগির তুলে সন্ত্রাস চালাচ্ছে বিজেপি।”

অন্যদিকে, বিজেপির জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর বলেন, ‘‘বিজেপি’র ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই তৃণমূল এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে।’’

প্রসঙ্গত, গত ২৩ জুন ভারতের ঝাড়খণ্ডে ‘চোর সন্দেহে’ এক মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। ১৮ ঘণ্টা ধরে বেধড়ক মারধরের পর অচেতন হয়ে পড়লে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এর আগে জোর করে ‘জয় শ্রীরাম’, ‘জয় হনুমান' বলতে বাধ্য করা হয় তাকে।