• বুধবার, অক্টোবর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৭ সকাল

মালালার সঙ্গে ছবি তুলে বিতর্ক

  • প্রকাশিত ০৯:২০ সকাল জুলাই ৬, ২০১৯
মালালার সঙ্গে কানাডার কিউবেক প্রদেশের শিক্ষামন্ত্রী জেন ফ্রাঙ্কোয়িস রবার্জ। ছবি : টুইটার
মালালার সঙ্গে কানাডার কিউবেক প্রদেশের শিক্ষামন্ত্রী জেন ফ্রাঙ্কোয়িস রবার্জ। ছবি : টুইটার

সম্প্রতি আইন করে কানাডায় কয়েকটি পেশার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে ধর্মীয় প্রতীক বহন করে এমন পোশাক পরতে নিষিদ্ধ করা হয়।

শান্তিতে নোবেলজয়ী পাকিস্তানের নারী অধিকারকর্মী মালালা ইউসুফজাইয়ের সঙ্গে ছবি তুলে বিতর্কের মুখে পড়েছেন কানাডার কিউবেক প্রদেশের শিক্ষামন্ত্রী জেন ফ্রাঙ্কোয়িস রবার্জ। 

সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, সম্প্রতি আইন করে কানাডার কিউবেকে কয়েকটি পেশার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে ধর্মীয় প্রতীক বহন করে এমন পোশাক পরতে নিষিদ্ধ করা হয়। পেশাগুলোর মধ্যে রয়েছে শিক্ষাকতাও। 

এমন আইন জারির পর মালালার সঙ্গে ছবি দিলে সমালোচনা শুরু হয় রবার্জকে নিয়ে। কারণ মালালা সেখানে হিজাব পরিধান করেন। আর গত জুনে পাস হওয়া ওই আইনে উল্লেখ করা পোশাকগুলোর মধ্যে রয়েছে ইহুদিদের ব্যবহৃত কিপাহ নামের টুপি ও শিখদের পাগড়ির পাশাপাশি হিজাবও। 

শিক্ষামন্ত্রী রবার্জ জানান, মালালার সঙ্গে তিনি শিক্ষা ও আন্তর্জাতিক উন্নয়নের বিষয়ে আলোচনা করেছেন। তবে ধর্মীয় প্রতীক সংশ্লিষ্ট পোশাকবিরোধী আইন করে সেই পোশাক পরিধানকারী একজনের সঙ্গে ছবি তোলায় তাকে 'প্রতারক' বলে আখ্যায়িত করেছেন অনেকেই। 

ফ্রান্সে মালালার সঙ্গে দেখা করেন রবার্জ। কিউবেকের এই মন্ত্রী সম্প্রতি কর্মস্থলে পোশাক নিয়ে সম্প্রতি পাস হওয়া আইনের একজন সমর্থক ছিলেন। 

এনিয়ে রবার্জকে সেলিম নাদিম নামের এক সাংবাদিক টুইটারে জিজ্ঞাসা করেন, তিনি (রবার্জ) শিক্ষা বিষয়ে মালালার সঙ্গে আলোচনা করেছেন। কিন্তু সেই মালালা যদি কিউবেকে শিক্ষকতা করতে চান, তাহলে কি তিনি সম্মত হবেন?    

কিউবেকে পাস হওয়া ওই আইন নিয়ে বেশ বিতর্কের সৃষ্টি হয়। আইনটি শুধু মুসলিমদের লক্ষ্য করে প্রণয়ন করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে।