• বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:২৮ রাত

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য, বন্দুক থেকে বের হলো না গুলি (ভিডিও)

  • প্রকাশিত ০৮:৫৬ রাত আগস্ট ২২, ২০১৯
রাষ্ট্রীয় সম্মান
গান স্যালুটের সময় গুলি ছোড়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন পুলিশের সদস্যরা। ছবি: সংগৃহীত

রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শনের সময় বারবার চেষ্টা করেও নিজেদের আনা ২২ টি রাইফেল থেকে একটি গুলিও ছুড়তে ব্যর্থ হন উপস্থিত পুলিশের সদস্যরা 

ভারতের বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জগন্ময় মিশ্রের শেষকৃত্যে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদর্শনের সময় নিয়ে আসা ২২টি বন্দুক থেকে গুলি বের না হওয়ায় প্রচণ্ড সমালোচনার মুখে পড়েছে স্থানীয় প্রশাসন এবং পুলিশ। বুধবার (২১ আগস্ট) এই ঘটনা বলে ভারতীয় গণমাধ্যম এএনআই'র একটি খবরে বলা হয়।

জানা যায়, গত ১৯ আগস্ট শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জগন্ময় মিশ্র। বুধবার তিন মেয়াদে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করা এই নেতার নিজের গ্রামের বাড়িতে তার শেষকৃত্য চলছিল। প্রয়াত নেতাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এসময় উপস্থিত ছিলেন বিহারের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নিতীশ কুমার, উপ-মুখ্যমন্ত্রী সুশীল কুমার মোদি ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পাণ্ডে।


তবে, বিপত্তি বাধে সাবেক মুখ্যমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সম্মান জানানোর সময়। তাকে 'গান স্যালুট' প্রদর্শনের সময় নিজেদের আনা ২২টি বন্দুক থেকে বারবার চেষ্টা করেও একটি গুলি বের করতে পারেননি সেখানে উপস্থিত স্থানীয় পুলিশের কোনো সদস্য। গান স্যালুটের সময় গুলি চালানোর বদলে পুলিশ সদস্যদের বন্দুক পরীক্ষা করতে দেখা যায়। কিন্তু শত চেষ্টার পরও উপস্থিত মুখ্যমন্ত্রীসহ অন্যান্য অতিথিদের মাঝে তারা একটি গুলিও বের করতে সক্ষম হননি।

এদিকে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন জগন্ময় মিশ্রের রাজনৈতিক সংগঠন রাষ্ট্রীয় জনতা দলের বিধায়ক পিপরা যদুবংশ কুমার যাদব। তিনি এই ঘটনাকে প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রীর জন্য অপমানজনক বলে আখ্যা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জগন্ময় মিশ্র শিক্ষকতা দিয়ে নিজের ক্যারিয়ার শুরু করে পদোন্নতি পেয়ে প্রফেসর হন। পরে কংগ্রেসের সাথে যুক্ত হয়ে রাজনীতিতে নাম লেখান তিনি। তিনি ৩ বার বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।