• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০০ রাত

কাশ্মীরের উত্তেজনা প্রশমনে মোদীর পরিকল্পনা শুনতে চান ট্রাম্প

  • প্রকাশিত ০৩:০২ বিকেল আগস্ট ২৩, ২০১৯
ট্রাম্প-মোদি
চলতি বছরের জুন মাসে জি-২০ সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এএফপি

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে অত্যন্ত আগ্রহী’

কাশ্মীরের উত্তেজনা প্রশমনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পরিকল্পনা শুনতে চান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হোয়াইট হাউজের এক কর্মকর্তা এই তথ্য জানান বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি'র খবরে বলা হয়েছে।

এনডিটিভি’কে হোয়াইট হাউজের ওই কর্মকর্তা জানান, "জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে প্রতিবেশী দুই দেশ ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে তৈরি হওয়া সাম্প্রতিক উত্তেজনাকর পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ওয়াশিংটন। আগামী ২৪-২৬ আগস্ট ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জি-৭ শীর্ষ সম্মেলনের সময় মুখোমুখি হবেন নরেন্দ্র মোদী ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেসময়ে তারা একটি বৈঠকও করবেন। সম্ভবত সেই সাক্ষাতের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদীর কাছ থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ ও রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার সিদ্ধান্তের পর তৈরি হওয়া ‘আঞ্চলিক উত্তেজনা’ হ্রাস করার ব্যাপারে কি পরিকল্পনা করছেন তিনি তা জানতে চাইতে পারেন ট্রাম্প।"

এছাড়াও কাশ্মীরে মানবাধিকার রক্ষা করতে বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে ভারত বিশেষ কী ভূমিকা নেবে সে ব্যাপারেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানতে চাইবেন বলে জানান তিনি।

এর আগে গত মঙ্গলবার কাশ্মীরকে ‘খুবই জটিল জায়গা’ আখ্যায়িত করে সেখানকার ‘উত্তেজনাপূর্ণ’ পরিস্থিতি নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দেন ট্রাম্প। বৃহস্পতিবার তার ঘোষণার পুনর্ব্যক্ত করে হোয়াইট হাউস থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, দুই দেশই যদি সহমত হয় তবে ভারত ও পাকিস্তানকে ‘সহায়তা করতে প্রস্তুত' ট্রাম্প প্রশাসন।

এপ্রসঙ্গে মার্কিন ওই কর্মকর্তা বলেন, "প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে ‘অত্যন্ত আগ্রহী’। তিনি (ট্রাম্প) এ কথাও ইঙ্গিত করেছেন যে উভয়পক্ষ একমত হলে তাদের মধ্যে উত্তেজনা হ্রাসে সহায়তা করতে প্রস্তুত। তবে আমরা জানি যে ভারত কোনও তৃতীয়পক্ষের মধ্যস্থতার জন্যে আবেদন করেনি।"