• মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩৯ রাত

রাতে চাঁদে নামবে চন্দ্রযান-২

  • প্রকাশিত ১০:২৩ রাত সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৯
চন্দ্রযান-২
মহাশুণ্যে উৎক্ষেপণের মুহূর্তে চন্দ্রযান-২। এএফপি

স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে চন্দ্রযান-২ এর অবতরণ লাইভে দেখবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

অবশেষে ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী হতে চলেছে ভারত। সব ঠিক থাকলে শুক্রবার রাতেই চাঁদের মাটি স্পর্শ করবে চন্দ্রযান-২।

প্রতিবেশী ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (আইএসআরও) জানায়, শুক্রবার রাত ১টা ৫৫ মিনিটে চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করার কথা রয়েছে এ মহাকাশ যানের।

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, চন্দ্রযান-২ চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করলে চাঁদের দক্ষিণ মেরুর কাছাকাছি প্রথম পৌঁছনোর ইতিহাস গড়বে ভারত। দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে লাইভ দেখবেন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, চাঁদে অবতরণ করতে যাওয়া যান ‘বিক্রম’ ইতিমধ্যে মূল মহাকাশ যান থেকে নিজেকে পৃথক করে নিয়ে চাঁদের চারপাশে প্রদক্ষিণ করছে। আশা করা হচ্ছে চাঁদ থেকে দূরত্ব কমিয়ে শুক্রবার রাত দেড়টা থেকে আড়াইটের মধ্যে বিক্রম চাঁদের মাটি ছুঁতে পারবে।

আইসআরও বলছে, রোভার ‘প্রজ্ঞান’ সকাল সাড়ে ৫টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে চাঁদের ল্যান্ডার থেকে বেরিয়ে আসবে। এবং চাঁদের উৎস সম্বন্ধে বিশদ বিবরণ, উপগ্রহে পানির উপস্থিতিসহ বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ছবি তুলে গবেষণা শুরু করবে।

ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার দাবি, চাঁদের যে অংশে ল্যান্ডার বিক্রম যাচ্ছে তাতে আজ পর্যন্ত কেউ পা রাখেনি। এতদিন সব অভিযান চাঁদের উত্তর মেরু বা গোলার্ধ এবং নিরক্ষীয় অঞ্চলে হয়েছে। এ প্রথম ভারত উপগ্রহের দক্ষিণ গোলার্ধ বা মেরুতে পা রাখতে চলেছে।

এর আগে চীন থেকে পাঠানো এক মহাকাশ যান চাঁদের উত্তরের অংশে অবতরণ করেছিল। পরে, যায় রাশিয়ার লুনা মিশন। চীন বর্তমানে চাঁদের অন্ধকার দিকে একটি রোভার অবতরণ করিয়েছে। চন্দ্রযান-২ সফল হলে আমেরিকা, রাশিয়া এবং চীনের পর চাঁদে পৌঁছানো দেশ হিসেবে ভারত চতুর্থ স্থানে উঠে আসবে।

প্রসঙ্গত, ২৩ জুলাই অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে উৎক্ষেপণ হয় চন্দ্রযান ২। এ মহাকাশ যানটি ৪৪ মিটার দীর্ঘ এবং উচ্চতায় ১৫ তলা ভবনের সমান।