• শুক্রবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৬ রাত

প্রথমবারের মতো স্পেসওয়াক করলো নারী নভাচারীদের দল

  • প্রকাশিত ১০:৫৪ রাত অক্টোবর ১৮, ২০১৯
নভোচারী
নারী নভোচারী ক্রিস্টিনা কোচ ও জেসিকা মেয়ের। ছবি: সংগৃহীত

এখন থেকে নারীদের নিয়ে নিয়মিত স্পেসওয়াক পরিচালনা করবে নাসা

প্রথমবারের মতো কোন পুরুষ নভোচারী ছাড়াই স্পেসওয়াক করে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন নারী নভোচারীদের একটি দল। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) বৈদ্যুতিক সংযোগের ভাঙা অংশ মেরামতের জন্য আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন থেকে বেরিয়ে আসেন নভোচারী ক্রিস্টিনা কোচ এবং জেসিকা মেইর।

কোচ ও মেইরের আগামী সপ্তাহে নতুন ব্যাটারি বসানোর কথা ছিল। কিন্তু একটি যন্ত্র নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তিন দিন আগেই তাদের মহাশূন্যে বের হওয়ার ঝুঁকিটি নিতে হয়। গত সপ্তাহে কোচ ও অ্যান্ড্রু মরগানের বসানো তিনটি নতুন ব্যাটারির মধ্যে একটির পুরনো চার্জার বদল করার উদ্দেশে তারা বের হন।

এদিকে, শুক্রবার ছিল মেইরের জন্য প্রথম স্পেসওয়াকের অভিজ্ঞতা। তিনি ২২৮তম ব্যক্তি এবং ১৫তম নারী হিসেবে স্পেসওয়াক করলেন। অন্যদিকে, কোচ চতুর্থবারের মতো স্পেসওয়াক করলেন। তিনি মহাকাশ স্টেশনে সপ্তম মাস অতিক্রম করছেন। পুরো ১১ মাসের মিশন সম্পন্ন করলে তিনি একজন নারীর পক্ষে মহাকাশ স্টেশনে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় অবস্থানের ইতিহাস তৈরি করবেন।

এমন অভূতপূর্ব কাজের জন্য নাসার কর্মকর্তারা মেইর ও ক্রিস্টিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। সেই সাথে তারা আশা প্রকাশ করেছেন যে ভবিষ্যতে এটি নিয়মিত কাজে পরিণত হবে।

উল্লেখ্য, গতবছরই নারীদের নিয়ে স্পেসওয়াক চালাতে চেয়েছিল নাসা। কিন্তু তখন যথেষ্ট পরিমাণে মাঝারি-আকারের পোশাক প্রস্তুত ছিল না।