• বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:১২ রাত

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রজনন কেন্দ্রে পাওয়া গেল শতাধিক বন্দি সিংহ

  • প্রকাশিত ০৫:০৬ সন্ধ্যা মে ৯, ২০১৯
সিংহ
ছবি: ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক

বিপুলসংখ্যক প্রাণী উদ্ধারের এই ঘটনাটিকে 'প্রাণীর ওপর অত্যাচারের ভয়াবহতম ঘটনা' হিসেবে দেখছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার একটি প্রজনন কেন্দ্র থেকে জরাজীর্ণ অবস্থায় রুগ্ন ও মৃতপ্রায় অবস্থায় ১০০টিরও বেশি সিংহ ও অন্যান্য প্রাণী উদ্ধার করা হয়েছে। দেশটির সাধারণ মানুষ উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকার বন্দিশালা স্বরূপ প্রজনন কেন্দ্রটি থেকে বিপুলসংখ্যক প্রাণী উদ্ধারের এই ঘটনাটিকে 'প্রাণীর ওপর অত্যাচারের ভয়াবহতম ঘটনা' হিসেবে দেখছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন গোপন সংবাদদাতা দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাণীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে গঠিত জাতীয় কাউন্সিলের কাছে জানালে বিষয়টি সামনে আসে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক।

খবর পেয়ে প্রজনন কেন্দ্রটিতে গিয়ে কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ দেখতে পায়, চর্মরোগে আক্রান্ত ২৭টি সিংহ। তারা এতটাই আক্রান্ত হয়েছিল যে, শরীরের প্রায় সব লোম পড়ে গিয়েছিল। 

পরিদর্শকরা জানান, প্রাণীগুলোকে রাখা হয়েছে নোংরা এবং ঘিঞ্জি পরিবেশে। দুটি সিংহ থাকতে পারে এমন জায়গায় গাদাগাদি রাখা হয়েছে ৩০টি সিংহকে। মস্তিষ্কে প্রদাহজনিত রোগে আক্রান্ত অন্তত তিনটি বাচ্চা। যার ফলে তারা হাঁটাচলায় অক্ষম। এদের মধ্যে একটিকে 'যন্ত্রণাবিহীনভাবে' মেরে ফেলেছেন প্রজনন কেন্দ্রটির চিকিৎসকরা।

পরিদর্শনকারী দলের ম্যানেজার ডগলাস ভোলহাটার বলেন, “বিষয়টি ব্যাখা করা কঠিন। বনের রাজাকে এমন অবস্থায় দেখতে পাওয়াটা সত্যিই কষ্টের।”

উল্লেখ্য, বিভিন্ন সময় দক্ষিণ আফ্রিকায় সিংহদের বন্দি করে রাখার খবর সামনে আসে। সেখানে অসহনীয় পরিবেশে রাখা হয় তাদেরকে।

এ বিষয়ে কথা বলতে চাইলে প্রজনন কেন্দ্রটির সত্বাধিকারী জ্যান স্টেইনম্যানে কিছু বলতে অপারগতা জানিয়েছেন।