• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৪ রাত

‘কারাগারে যাব তবু বউয়ের কাছে ফিরব না’ (ভিডিও)

  • প্রকাশিত ০৪:০০ বিকেল মে ২১, ২০১৯
ফ্লোরিডা গাড়ি
ছবি: সংগৃহীত

‘বউ আমার সঙ্গে এমন আচরণ করে যেন আমি চাকর আর সে মনিব! আমি ক্লান্ত।’

ব্যস্ত মহাসড়কে গাড়ি ছুটিয়ে সানরুফে (ছাদের হুড) দাঁড়িয়ে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার বাসিন্দা লিওনার্ড ওলসেন। ফলশ্রুতিতে পুলিশ আটক করে তাকে। তিনি জানান, বাড়িতে স্ত্রী'র কাছে ফেরার চেয়ে তিনি বরং পুলিশ হেফাজতেই থাকবেন।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশ তাকে আটক করে। ব্যস্ত রাস্তায় গাড়ি ছুটিয়ে দু' হাত ছড়িয়ে সানরুফে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। 

ওলসেনের এমন কাণ্ডের ভিডিওধারণকারী জানিয়েছেন, চলন্ত গাড়িতে এক সময় তিনি গাড়ির সানরুফের ওপর উঠে বসে পড়েছিলেন। এক পর্যায়ে ঘটনাটি নজরে আসে একজন পুলিশ সদস্যের। তিনি ঘটনাটি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানান। পরে ট্রাফিক বিভাগের সদস্যরা এসে তাকে আটক করে।

ধরা পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই পুরো ঘটনাটি অস্বীকার করেন তিনি। চলন্ত গাড়ির সানরুফে দাঁড়ানোর বিষয়ে তিনি জানান, “এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না।”

তার কর্মকাণ্ড যে ইতোমধ্যেই ভিডিও করা হয়েছে মনে করিয়ে দিলে সুর পাল্টান তিনি। তখন জানা যায় আসল ঘটনা। ইচ্ছা করেই নাকি তিনি এমনটা করেছিলেন যাতে পুলিশ তাকে ধরে। কারণ তিনি নাকি বাড়িতে স্ত্রীর কাছে ফিরতে চান না!

তার দাবি, “বউ আমার সঙ্গে এমন আচরণ করে যেন আমি চাকর আর সে মনিব! আমি ক্লান্ত।” তাই তিনি বাড়ি যাওয়ার বদলে কারাগারে যেতে চান।

৭০ বছর বয়সী ওলসেন আরও বলেন, “গাড়িটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলতে পারে। আর এটা ছিল এক মিনিটের জন্য ঈশ্বরের কাছে কৃতজ্ঞতা জানানোর জন্য এক মিনিটের সুযোগ।”

তবে এমন ঘটনা এবারই প্রথম নয়। এর আগেও অনেকেই স্ত্রীর ভয়ে বাড়ি না ফিরে কারাগারে যাওয়ার জন্য অনেক কাণ্ডই ঘটিয়েছেন। বছর তিনেক আগে যুক্তরাষ্ট্রেই এক ব্যক্তি ব্যাংক ডাকাতি করে পুলিশের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। দাবি অনুযায়ী, তারও ‘স্ত্রী-ভীতি’ ছিল।

ভিডিও-