• রবিবার, মার্চ ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০১ রাত

কুয়েত মৈত্রী হলের ভোটগ্রহণ স্থগিত, প্রভোস্ট বরখাস্ত

  • প্রকাশিত ১০:৫৪ সকাল মার্চ ১১, ২০১৯
শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
সিলমারা ব্যলট হাতে ছাত্রীদের বিক্ষোভ। ছবি: মেহেদি হাসান/ঢাকা ট্রিবিউন।

সিলসহ ব্যালট পেপার পাওয়ার ঘটনার প্রেক্ষিতে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

ঐ হলের পাশ থেকে এক বস্তা সিল মারা ব্যালট পেপার উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় ভোটে অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে  এই হলের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়।

এই ঘটনায় বরখাস্ত করা হয়েছে হল প্রভোস্ট শবনম জাহানকে। এই হলে নতুন প্রভোস্টের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে অধ্যাপক মাহবুবা নাসরিনকে।

এর আগে সিলসহ ব্যালট পেপার পাওয়ার ঘটনার প্রেক্ষিতে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। পরে সেখানে যান প্রক্টর গোলাম রব্বানী ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ সামাদ। এসময় তারা এই ঘটনায় যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলের ভোটারসংখ্যা প্রায় ২ হাজার এবং কেন্দ্রসংখ্যা ১৯টি। সোমবার সকাল ৮ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সবগুলো হলে ডাকসু নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়া তথ্যানুসারে, এবারের ডাকসু নির্বাচনে মোট ৪৩ হাজার ২৫৬ ভোটারের মধ্যে ১৬ হাজার ২৯২ জন নারী ভোটার এবং ২৬ হাজার ৯৬৪ জন পুরুষ ভোটার রয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে ডাকসুর ২৫টি পদে বিভিন্ন প্যানেল ও স্বতন্ত্রভাবে মোট ২২৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পদে- ভিপি (ভাইস প্রেসিডেন্ট) পদে ২১ জন, জিএস (সাধারণ সম্পাদক) পদে ১৪ জন, এজিএস (সহ সাধারণ সম্পাদক) পদে ১৩ জন প্রার্থী রয়েছেন।