• শুক্রবার, আগস্ট ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫১ রাত

সুলতান মনসুর: আওয়ামী লীগ থেকেও বহিষ্কৃত হইনি, অন্য দলেও যাইনি

  • প্রকাশিত ০৫:৫৯ সন্ধ্যা মার্চ ২২, ২০১৯
সুলতান মনসুর
শুক্রবার গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

তিনি আরও বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আরও যে নেতারা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তারাও আগামীতে শপথ নেবেন। বঙ্গবন্ধুর সমাধিতেও আসবেন।

ঐক্যফ্রন্ট থেকে বহিষ্কৃত ডাকসুর সাবেক ভিপি ও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর বলেছেন, ঐক্যফ্রন্টের জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আমি একজন প্রতিনিধি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নীতি-নির্ধারণী সভায় আমি ছিলাম। আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে অন্য কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেইনি। আবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগও আমাকে বহিষ্কার করেনি। আমার শেষ রাজনৈতিক পদ ছিলো আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক। 

শুক্রবার দুপুরে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর একজন অনুসারী। বিবেকের তাড়নায় এখানে এসেছি। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নেতা মেনে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানানো আমার পবিত্র দায়িত্ব। আমি বঙ্গবন্ধুর কবর জিয়ারত করে মোনাজাত করেছি। 

সুলতান মনসুর আরও বলেন, আমি মনে করি ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আরও যে নেতারা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তারাও আগামীতে শপথ নেবেন। বঙ্গবন্ধুর সমাধিতেও আসবেন।

এর আগে টুঙ্গিপাড়া পৌঁছে সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান এবং মোনাজাত করেন। এ সময় টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. ইলিয়াস হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী গোলাম মোস্তফাসহ সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদের নির্বাচনী এলাকার নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।