• সোমবার, জুন ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:১৩ রাত

শিক্ষামন্ত্রী: প্রতিটি মানুষকে রাজনীতি সচেতন হতে হবে

  • প্রকাশিত ০৬:৪৮ সন্ধ্যা এপ্রিল ৪, ২০১৯
দীপু মনি
বৃহস্পতিবার খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ঢাকা ট্রিবিউন

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার সরকার কোনও ক্ষেত্রেই অপূর্ণতা রাখবে না।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, রাজনীতি করতেই হবে, এমন নয়। তবে প্রতিটি মানুষকে রাজনীতি সচেতন হতে হবে। কারণ রাজনীতির বাইরে কিছু নেই। দেশকে এগিয়ে নিতে হলে সবাইকে সাদা-কালোর তফাত বুঝতে হবে। আর সেজন্যই রাজনীতি সচেতন হওয়া প্রয়োজন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে 'শিক্ষামেলা-২০১৯' উদ্বোধন উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যে রাজনীতি জঙ্গিবাদ, অপরাধকে উসকানি ও আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয় তাকে সমর্থন করা অনুচিত। এ বিষয়টা বুঝতেই সকলকে রাজনীতি সচেতন হতে হবে। তিনি বলেন, ভালো শিক্ষক, ভালো ছাত্র কিংবা ভালো গবেষক হলেই কেবল চলবে না, ভালো-মন্দ বোঝার জন্য রাজনৈতিকভাবে সচেতন হতে হবে। কোন অপরাজনীতি দেশের জন্য ক্ষতিকর সেটাও বুঝতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার উচ্চশিক্ষাসহ শিক্ষার সর্বস্তরে গুণগতমান অর্জনে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে। একইসঙ্গে বিশ্বমঞ্চে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে কর্মমুখী শিক্ষার প্রসার এবং বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে গবেষণা ও উদ্ভাবনে জোর দেওয়া হচ্ছে।

তিনি শিক্ষামেলার মাধ্যমে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের গবেষণা উদ্ভাবনা প্রদর্শন শিক্ষার্থীসহ সর্বসাধারণের জানার সুযোগ হবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন এবং এ উদ্যোগের জন্য খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

দীপু মনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে ত্রিশ লক্ষ প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত এ স্বাধীন দেশে জঙ্গিবাদ ও অপরাজনীতি ঠাঁই পাবে না।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়ন এবং বিশেষ করে একটি একাডেমিক ভবন ও দুইটি আবাসিক হল নির্মাণের বিষয়ে উপাচার্যের উত্থাপিত প্রস্তাব প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার সরকার কোনও ক্ষেত্রেই অপূর্ণতা রাখবে না। তবে তিনি প্রকল্প বাস্তবায়নের সক্ষমতা অর্জনের ওপর জোর দেন।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব সোহরাব হোসাইন ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ। স্বাগত বক্তৃতা করেন মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড. মো. মনিরুল ইসলাম। এছাড়া, বক্তৃতা রাখেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মো. সারওয়ার জাহান।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. এম শাহ নওয়াজ আলী, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেন, প্রফেসর ড. মুনতাসীর মামুন, বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়াসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন, রেজিস্ট্রার, ডিসিপ্লিন প্রধান, প্রভোস্ট, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারিরা উপস্থিত ছিলেন।

এ মেলায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের চতুর্থ বর্ষ, মাস্টার্স ও পিএইচ.ডি’র শিক্ষার্থীরা তাদের গবেষণার বিষয়বস্তু ৩০টি স্টলে পোস্টারের মাধ্যমে প্রদর্শন করেন।