• বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩০ রাত

তথ্যমন্ত্রী: দেশের গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করছে

  • প্রকাশিত ০৭:৪৬ রাত এপ্রিল ৪, ২০১৯
তথ্যমন্ত্রী ডা. হাছান মাহমুদ
বৃহস্পতিবার রাজধানীর দারুস সালামে জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বাংলাদেশ সিনেমা এন্ড টেলিভিশন ইনিস্টিটিউট পরিচালিত চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অনুষ্ঠান নির্মাণ বিষয়ক দুটি ডিপ্লোমা কোর্স সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন তথ্যমন্ত্রী ডা. হাছান মাহমুদ। ছবি: বাসস

'খালেদা জিয়ার চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে সরকার যে ধরনের সহযোগিতা করছেন তা পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন'

দেশের গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ডা. হাছান মাহমুদ। বৃহস্পতিবার রাজধানীর দারুস সালামে জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট (এনআইএমসি) মিলনায়তনে বাংলাদেশ সিনেমা এন্ড টেলিভিশন ইনিস্টিটিউট (বিসিটিআই) পরিচালিত চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অনুষ্ঠান নির্মাণ বিষয়ক দুটি ডিপ্লোমা কোর্স সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এি মন্তব্য করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, "গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করছে এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে সরকার বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়নে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে"।

এসময় সংসদের বাইরে থেকেও বিএনপি টিভি রেডিও ও সংবাদপত্রে যে প্রচার পায়, ক্ষমতায় থেকেও আওয়ামী লীগ তা পায়না উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ আরো বলেন, "তারা (বিএনপি) সংসদে না থেকেও রাজপথে বক্তব্য দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে যেভাবে জায়গা করে নিচ্ছে, আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন দল হয়েও তেমন স্পেস (জায়গা) পায় না। বিএনপি নেতারা সকাল বিকাল দুইবেলা বক্তব্য দিয়েও বলেন তাদের না কি কথা বলার অধিকার নেই"।

এসময় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসা প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, "বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসা নিয়ে বেগম খালেদা জিয়া সন্তুষ্ট। অথচ তার দলীয় নেতারা এমন ভাবে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে কথা বলেন, যেন তারা একেকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক"।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, "খালেদা জিয়ার চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে সরকার যে ধরনের সহযোগিতা করছেন তা পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন। তার পছন্দ অনুযায়ী ফিজিওথেরাপিস্ট, সেবিকা, পরিচারিকা দেয়া হয়েছে। একমাস ধরে বিএসএমএমইউতে তার জন্য কেবিন বরাদ্দ রাখা হয়েছিল। তিনি তা গ্রহণ করেননি"।

বিএনপি নেত্রীর স্বাস্থ্য নিয়ে কিছু হলেই তারা বিদেশীদের কাছে গিয়ে ধর্না দেয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, "বিদেশীদের কাছে ধর্না দেয়া নয়, বিএনপি যদি বাংলাদেশের জনগণের দল হয়ে থাকে তাহলে জনসাধারণের কাছেই থাকা উচিত"।

বিসিটিআইয়ের প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ আজহারুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক।

এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, জাতীয় গণমাধ্যম ইন্সিটিটিউটের মহাপরিচালক শাহিন ইসলাম, বিসিটিআইয়ের পরিচালক মারুফ নেওয়াজ, কোর্স পরিচালক ম. হামিদ, শাহনাজ নাসরীনসহ এনআইএমসির বিসিটিআইয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ।

পরে, তথ্যমন্ত্রী প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত তরুণ চলচ্চিত্র পরিচালক ও নির্মাতাদের মধ্যে সনদ ও ক্রেস্ট প্রদান করেন।