• শুক্রবার, আগস্ট ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫১ রাত

ধর্ষণ ও হত্যার সংস্কৃতি বন্ধে রাষ্ট্রপতিকে সংলাপ আয়োজনের আহ্বান বিএনপির

  • প্রকাশিত ০৮:৫৬ রাত জুলাই ১৩, ২০১৯
বিএনপি
শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম কর্তৃক আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন। ছবি: ইউএনবি

'দেশে প্রথমবারের মতো একজন ধনী ব্যক্তিকে অর্থমন্ত্রী বানানো হয়েছে'

দেশে ক্রমবর্ধমান ধর্ষণ ও হত্যার সংস্কৃতি বন্ধে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে জাতীয় সংলাপ আয়োজন করার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র নেতা খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম কর্তৃক আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এই আহ্বান জানান। 

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, "সামাজিক মূল্যবোধ ব্যাপকভাবে হ্রাস পাওয়ার কারণে দেশে ধর্ষণ, হত্যা ও গুম হওয়ার ঘটনা মহামারির আকার ধারণ করেছে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। দেশকে এসব ঘটনা থেকে নিরাপদ রাখতে রাষ্ট্রপতি দ্রুত জাতীয় সংলাপ আয়োজনের পদক্ষেপ নিতে পারেন।"

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য আরো বলেন, "এ সরকার অস্বাভাবিক সরকার। তারা অস্বাভাবিকভাবে দেশ পরিচালনা করছে। অস্বাভাবিক কিছু বেশি দিন টিকে থাকতে পারে না। অতএব এ অস্বাভাবিক সরকারের হাত থেকে দেশকে মুক্ত করে গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে হবে।"

এ সময় ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প নেয়ার পরও দেশের প্রধান দুই নগরী ঢাকা ও চট্টগ্রামে জলাবদ্ধতার জন্য সরকারের কঠোর সমালোচনা করেন বিএনপি নেতা মোশাররফ।

তিনি বলেন, "আমরা সরকারের উন্নয়নের নমুনা দেখছি। গত কয়েকদিন ধরে ঢাকা ও চট্টগ্রামে ব্যাপক জলাবদ্ধতায় মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই। এত টাকা ব্যয় করে কী উন্নয়ন করছেন আপনারা?"

আ হ ম মুস্তফা কামালকে অর্থমন্ত্রী করার সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেন তিনি। মোশাররফ বলেন, "তিনি (অর্থমন্ত্রী) দেশের সেরা ১০ ধনীর একজন। ধনী ব্যবসায়ীদের কোনো দেশের অর্থমন্ত্রী করা হয় না। দেশে প্রথমবারের মতো একজন ধনী ব্যক্তিকে অর্থমন্ত্রী বানানো হয়েছে।"

বিএনপির সিনিয়র নেতা আরো অভিযোগ করেন, "অর্থমন্ত্রী কেবল ধনীদের স্বার্থ দেখছেন, সাধারণ জনগণের নয়।"