• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৪ রাত

২৭ বছর পর বিশ্বকাপ ফাইনালে ইংল্যান্ড

  • প্রকাশিত ১১:২৬ সকাল জুলাই ১২, ২০১৯
জেসন রয়
সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাট করছেন ইংলিশ ওপেনার জেসন রয়। রয়টার্স

রবিবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালে খেলতে নামবে ইংল্যান্ড

সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিয়ে ১৯৯২ এর পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড। বৃহস্পতিবার এজবাস্টনে ৮ উইকেটে জয় তুলে নেয় স্বাগতিকরা।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। তবে, ব্যাটিংয়ে নেমে খুব বেশি সুবিধা করতে পারেনি অজি ব্যাটসম্যানরা। ওকস এবং আর্চারের বোলিং তোপে মাত্র ১৪ রান তুলতেই ৩ উইকেট খুইয়ে বসে তারা। এরপর প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন স্মিথ এবং ক্যারি। এই দুই ব্যাটসম্যান ১০৩ রানের একটি গুরুত্বপূর্ণ জুটি গড়ে তোলেন। কিন্তু এরপরই ইংলিশ স্পিনার আদিল রশিদ এক ওভারে ক্যারি (৪৬) এবং মার্কাস স্টোইনিসকে (০) ফেরালে আবার ছন্দ হারায় অজিরা। এরপর তাদের আর খেলায় ফেরার কোনো সুযোগ দেয়নি দারুণ ফর্মে থাকা ইংলিশ বোলাররা। মাঝখানে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (২২) অপরপ্রান্ত আগলে রাখা স্টিভ স্মিথকে কিছুক্ষণ সঙ্গ দেওয়ার চেষ্টা করলেও বড় পার্টনারশিপ গড়ে তুলতে পারেননি। এরপর মিচেল স্টার্ক (২৯) কিছুক্ষণ প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানোর ফলে ১ ওভার বাকি থাকতেই ২২৩ রানেই থেমে যায় বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের ইনিংস।


অজি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একমাত্র ব্যতিক্রম ছিলেন স্টিভ স্মিথ। রান আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে ১১৯ বলে ৬ বাউন্ডারিতে করে যান ৮৫ রান। ইংলিশদের পক্ষে ক্রিস ওকস এবং আদিল রশিদ ৩টি, আর্চার ২টি এবং উড ১টি উইকেট দখল করেন।  

২২৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরু থেকেই অজি বোলারদের উপর চড়াও হন দুই ইংলিশ ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো। দুইজন মিলে ওপেনিং জুটিতে ১২৪ রান তোলেন। বেয়ারস্টোকে ৩৪ রানে এলবিডাব্লিউ এর ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফেরান মিচেল স্টার্ক। এর মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ান গ্রেট গ্লেন ম্যাকগ্রা টপকে এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ডটা নিজের করে নেন স্টার্ক। এই বিশ্বকাপে ২৭টি উইকেট নিয়েছেন তিনি।

কিন্তু জেসন রয়ের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ম্যাচে ফেরার কোনো সুযোগ পায়নি অজিরা। আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার বিতর্কিত সিদ্ধান্তে সাজঘরে ফেরার আগে ৬৫ বলে ৯ চার ও ৫ ছক্কায় ৮৫ রান করে জয়ের ভিতটা গড়ে দেন এই ইংলিশ ওপেনার। তখনও ১৮২ বলে ৭৭ রান দরকার ইংল্যান্ডের। রুট (৪৯) এবং মরগান (৪৫) ১৭.৫ ওভার বাকি থাকতেই সেই লক্ষ্যে পৌঁছে দেন ইংল্যান্ডকে। দীর্ঘ ৯,৯৬৯ দিন পর বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফাইনালে ওঠে স্বাগতিকরা।


অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে একটি করে উইকেট নেন মিচেল স্টার্ক এবং প্যাট কামিনস। বিধ্বংসী বোলিংয়ের জন্য ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছেন ইংলিশ পেসার ওকস। রবিবার লর্ডসে ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে স্বাগতিকরা।