• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:২৫ বিকেল

বিসিবি প্রধান: আমরা শকড

  • প্রকাশিত ০৯:৪৩ রাত অক্টোবর ২৯, ২০১৯
সাকিব আল হাসান
মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন নাজমুল হাসান পাপন। ঢাকা ট্রিবিউন

‘আমি অনেকবার বলেছি, দুজন খেলোয়াড়ের বিকল্প আমাদের নেই। একজন মাশরাফি, আরেকজন সাকিব। তাদের বিকল্প কাউকে পাবো কিনা জানি না। সে খেলতে পারছে না, এতেই আমরা শকড’

বাংলাদেশ টেস্ট ও টি২০ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ওপর ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) দেওয়া নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি “অত্যন্ত শকিং” বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

সাকিব আল হাসানের ওপর দুই বছরের নিষেধাজ্ঞার খবরের পর মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) রাতে বিসিবি কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে পাপন এ কথা জানান।

তিনি সাকিবের পাশে আছেন এবং থাকবেন জানিয়ে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, “আমরা অবশ্যই শকড, এটা অত্যন্ত শকিং। শকড হওয়ার মতো এর চেয়ে বড় খবর আর নেই।”

এই সময়ে সাকিবের শূন্যতা পূরণ হওয়ার মতো নয় জানিয়ে বিসিবি প্রধান, “আমি অনেকবার বলেছি, দুজন খেলোয়াড়ের বিকল্প আমাদের নেই। একজন মাশরাফি, আরেকজন সাকিব। তাদের বিকল্প কাউকে পাবো কিনা জানি না। সে খেলতে পারছে না, এতেই আমরা শকড।”


আরো পড়ুন - সাকিব: আমার মতো ভুল যেন কেউ না করে


ভারত সফরে সাকিবকে না পাওয়া একটা বড় ধাক্কা স্বীকার করে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, “ভারতে প্রথম সিরিজ খেলতে যাচ্ছি আমরা, সব পরিকল্পনা সাকিবকে নিয়েই করা হয়েছিল। এখন রাগ হচ্ছে যে কেন জানালো না (প্রস্তাব পাওয়া)। রাগটা এতক্ষণ প্রকাশ করিনি, তাকে সামনে পেয়ে বলেছি।”

তিনি বলেন, “সবাইকে বলতে চাই, আমি খুশি যে সাকিব স্বীকার করেছে। অবশ্য খুশি হওয়ার সবচেয়ে বড় কারণ দুর্নীতি বিরোধী ইউনিটকে পুরোপুরি সহযোগিতা করেছে সে।”

দুর্নীতি বিরোধী ইউনিট যে সাকিবকে ডেকেছে, তিনি সেটাও জানতেন না জানিয়ে পাপন বলেন, “আমরা কিছুই জানি না। তারা (দুর্নীতি বিরোধী ইউনিট) একেবারে আলাদা। শুধু সাকিবের সঙ্গেই ওরা দেখা করেছে। আমরা শুধু রেজাল্ট জানতে পেরেছি। দুই তিন দিন আগে ধর্মঘটের পর সাকিবই প্রথম বললো।”


আরো পড়ুন - ক্রিকেট থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ সাকিব


এই দুঃসময়ে সাকিবের পাশে থাকতে চান নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেন, “আমি মনে করি, সবাইকে সাকিবের পাশে থাকা উচিত। ওর ভেঙে পড়ার কোনও কারণ নেই। সবসময় বিসিবি পাশে থাকবে। খুব শিগগিরই ক্রিকেটে সে ফিরে আসবে এবং বাংলাদেশকে আরও ওপরে নিয়ে যাবে।”

এর আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধের ঘোষণা দেয় ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। তবে অপরাধ স্বীকার করে নেওয়ার এই দুই বছরের মধ্যে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করা হয়েছে। তবে ভবিষ্যতে একই অপরাধ প্রমাণিত হলে স্থগিত নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সাকিব আল হাসানের প্রতি নিষেধাজ্ঞার তথ্য জানায় আইসিসি।


আরো পড়ুন - প্রধানমন্ত্রী: সাকিবের বিষয়ে সরকারের তেমন কিছু করার নেই