• বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪৯ সন্ধ্যা

আবার সমালোচনার মুখে জাকারবার্গ

  • প্রকাশিত ০৬:০৫ সন্ধ্যা জুলাই ১৯, ২০১৮
zuckerberg-7592-1532001885480.jpg
আবার সমালোচনার মুখে জাকারবার্গ। ছবি: রয়টার্স

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের গণহত্যা অস্বীকারকারীদের ফেসবুকে ব্যান করা হবে না, এমন মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের গণহত্যা অস্বীকারকারীদের ফেসবুকে ব্যান করা হবে না, এমন মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ। বুধবার এক পডকাস্ট সাক্ষাতকারে এই মন্তব্য করেন তিনি।

এ বিষয়ে জাকারবার্গের ভাষ্য হচ্ছে, ফেসবুক প্লাটফর্ম থেকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের গণহত্যা অস্বীকারকারীদের ব্যান করার দায়িত্বটি ফেসবুকের নয়। কারণ, ব্যক্তিগত ভুল ধারণার চেয়ে ভুল তথ্য প্রচারকারী ক্যাম্পেইন এবং এ জাতীয় অন্যান্য ম্যালিশাস কার্যক্রম ঠেকানোর দিকে বেশি মনোযোগী প্রতিষ্ঠানটি।

বিজনেস ইনসাইডারের প্রতিবেদনের বরাতে জানা গেছে, ওই পডকাস্ট সাক্ষাতকারে রিকোডের কারা সুইশারকে জাকারবার্গ বলেন, “ব্যক্তিগতভাবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের গণহত্যা অস্বীকারকারীদের পোস্টের বিরুদ্ধে আমি। কিন্তু, দিনশেষে আমি মনে করি না, আমাদের প্রতিষ্ঠানের সেগুলো নামিয়ে নেওয়া উচিত। কারণ, বিভিন্ন মানুষের ভিন্ন ভিন্ন ভুল ধারণা থাকতেই পারে। আমার মনে হয় না, কাজটি ইচ্ছাকৃতভাবে করছে তারা।”

পরবর্তীতে, সুইশারকে এ বিষয়ে পাঠানো এক মেইলে জাকারবার্গ জানিয়েছেন, “ভ্রান্ত সংবাদের ক্ষেত্রে আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, মানুষের ব্যক্তিগত ‘অসত্য’ তথ্য ঠেকানোর বদলে সেবায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকা ভ্রান্তিমূলক সংবাদ ও ভুল তথ্য ঠেকানো।”             

সাক্ষাতকারটি অনুলিপি প্রকাশের পর থেকেই সমালোচনার ঝড় উঠেছে। অ্যান্টি-ডিফেমেশন লিগের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জোনাথান গ্রিনব্লাট এ প্রসঙ্গে এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, প্লাটফর্মে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের গণহত্যা অস্বীকারকারীদের পোস্ট ছড়িয়ে পড়া ঠেকানোটি ফেসবুকের নৈতিক দায়িত্ব।                 

ওই টুইটবার্তায় গ্রিনব্লাট আরও বলেন, “দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের গণহত্যা অস্বীকার করার বিষয়টি ইচ্ছাকৃত, সুচিন্তিত এবং দীর্ঘকাল ধরে চলে আসা বিভ্রান্তিকর একটি কৌশল যা নিঃসংশয়ে ইহুদিদের জন্য ঘৃণা, দুঃখ ও হুমকিমূলক একটি আচরণ।”