• সোমবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩১ রাত

‘ইন্টারনেট’ দেবে ফেসবুকের স্যাটেলাইট

  • প্রকাশিত ০৯:৫৩ রাত জুলাই ২২, ২০১৮
lead-720-405-1532274704709.jpg
কৃত্রিম উপগ্রহ তৈরির প্রকল্প হাতে নিয়েছে ফেসবুক। ছবি: রয়টার্স

নিজেদের স্যাটেলাইট প্রকল্প সম্পর্কে স্বয়ং ফেইসবুকই নিশ্চিত করেছে।

কৃত্রিম উপগ্রহ তৈরির প্রকল্প হাতে নিয়েছে ফেসবুক। স্যাটেলাইটটির মাধ্যমে পৃথিবীর দুর্গম অঞ্চলে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা দেওয়া সম্ভব হবে। প্রযুক্তিভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ওয়্যারড-এর বরাতে সম্প্রতি এই তথ্য জানা গেছে।

নিজ প্রতিবেদনে ‘ফ্রিডম টু ইনফরমেশন অ্যাক্ট রিকোয়েস্ট’ তথ্যসূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে ওয়্যারড জানিয়েছে, ২০১৬-২০১৮ সাল পর্যন্ত এফসিসি ও ফেসবুকের মধ্যে বেশ কিছু ইমেইল আদান-প্রদান হয়েছে। এর মধ্যে ২০১৮ সালে ফেসবুকের তরফ থেকে পাঠানো মেইলগুলোতে ‘অ্যাথেনা স্যাটেলাইট’-এর নাম উল্লেখ করতে দেখা গেছে।

এই বছরের শুরুর দিকে গুজব ছড়িয়ে পড়েছিল, নতুন স্যাটেলাইট প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে এফসিসি। কিন্তু, স্যাটেলাইটটি যে ফেসবুকের তা তখন বুঝা সম্ভব না হলেও, এখন বিষয়টি পরিস্কার। নিজেদের স্যাটেলাইট প্রকল্প সম্পর্কে স্বয়ং ফেইসবুকই নিশ্চিত করেছে ওয়্যারডকে। তবে এখনও এ বিষয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানায়নি প্রতিষ্ঠানটি। 

ইতোপূর্বে ২০১৬ সালে স্যাটেলাইট প্রযুক্তি নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করেছিল ফেসবুক। সে সময় আফ্রিকার বেশ কিছু অংশে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছানোর কথা ভেবেছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি। কিন্তু, স্পেসএক্সের একটি রকেট পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের সময় বিস্ফোরিত হওয়ায়, নিজেদের চিন্তা থেকে পিছু হটেছিল ফেসবুক।

বেশ কয়েক বছর ধরেই ইন্টারনেট সেবার বাইরে থাকা মানুষদেরকে নেটের আওতায় আনতে কাজ করে যাচ্ছে ফেসবুক। মূলত সম্পূর্ণ বিষয়টিই প্রতিষ্ঠানটির ব্যবসায়িক কৌশল বলে দাবি করেছে একাধিক শক্তিশালী সংবাদমাধ্যম। 

বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির ব্যবহারকারী সংখ্যা ২০০ কোটিরও বেশি। তারপরও ব্যবসায়ের পরিসর আরও বাড়াতে নতুন নতুন কৌশল অবলম্বন করছে প্রতিষ্ঠানটি।