• বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৫৮ রাত

‘বিদ্যমান অবকাঠামোতে পূর্ণমাত্রার ফোরজি সেবা দেওয়া কঠিন’

  • প্রকাশিত ০৮:১৪ রাত এপ্রিল ৩, ২০১৯
ফোরজি
প্রতীকী ছবি/বিগস্টক

কোনও অপারেটরের গতিই ৭ এমবিপিএস কিংবা তার বেশি নয়। যদিও নীতিমালা অনুযায়ী, ফোরজি সেবার গতি ৭ এমবিপিসের বেশি হওয়ার কথা।

চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি) ইন্টারনেট সেবায় নির্ধারিত মাত্রার গতি দিতে পারছে না দেশের ৫ টি মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরের কেউই। দেশের চারটি বিভাগে জরিপ চালিয়ে এমনটাই জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বুধবার এ জরিপের ফলাফল প্রকাশ করেছে বিটিআরসি। রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও রংপুর বিভাগে এ জরিপ চালানো হয়। এর আগে ঢাকায়ও একই জরিপ করেছিল বিটিআরসি। সেখানেও ফোরজির জন্য নির্ধারিত হারে গতি পাওয়া যায়নি। তবে অপারেটরগুলোর দাবি, বর্তমান অবকাঠামোতে এর চেয়ে বেশি গতি দেওয়া কঠিন।

গত জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে বিটিআরসির এ জরিপে ৭০০ থেকে ২ হাজার নমুনা ব্যবহার করা হয়েছে। জরিপে বলা হয়, কোনও বিভাগেই কোনও অপারেটরের গতি ৭ এমবিপিএস কিংবা তার বেশি নয়। যদিও নীতিমালা অনুযায়ী, ফোরজি সেবার গতি ৭ এমবিপিসের বেশি হওয়ার কথা।

এই জরিপে কোনও কোনও ক্ষেত্রে কল সংযোগ বা সেটআপের ক্ষেত্রে বাড়তি সময় লাগার ঘটনাও শোনা যায়। আর সেবার মান বিবেচনায় সবচেয়ে দুর্দশাগ্রস্ত সরকারি অপারেটর টেলিটক।

জরিপ অনুযায়ী, এ চার বিভাগে গ্রামীণফোনের ফোরজি সেবার ডাউনলোড গতি সর্বনিম্ন খুলনায়, ৪ দশমিক ৬৩ এমবিপিএস। বেশি রংপুরে, ৬ দশমিক ৮৮ এমবিপিএস। রাজশাহী বিভাগে গ্রামীণফোনের ফোরজির গতি ৬ দশমিক ৬৯ ও বরিশালে ৫ দশমিক ১ এমবিপিএস। কল সংযোগের ক্ষেত্রে গ্রামীণফোনে নির্ধারিত ৭ সেকেন্ডের বেশি সময় লাগে খুলনা ও বরিশালে। বাকি সব ক্ষেত্রে গ্রামীণফোন নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে ভালো মানের সেবা দিচ্ছে।

রবির ক্ষেত্রে সবচেয়ে কম গতি ৪ দশমিক ৮৯ এমবিপিএস, যা মিলেছে বরিশালে। সর্বোচ্চ ৬ দশমিক ৭৫ মিলেছে রাজশাহীতে। খুলনায় রবির গতি ৫ দশমিক ২৯ এমবিপিএস ও রংপুরে ৬ দশমিক ৫১ এমবিপিএস। খুলনায় রবির থ্রিজির গতি নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে কম। বরিশালে তাদের কল সংযোগের গড় সময় নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে সামান্য বেশি। অন্য সব ক্ষেত্রে রবির সেবার মান ঠিক আছে।

বাংলালিংকের ক্ষেত্রে ফোরজির সর্বনিম্ন গতি বরিশালে, ৩ দশমিক ৫৬ এমবিপিএস। খুলনায় তা ৪ দশমিক ৯৬, রাজশাহীতে ৫ দশমিক ১০ ও রংপুরে ৪ দশমিক ৬৮ এমবিপিএস। বাংলালিংকের ক্ষেত্রে কল সংযোগের গতি খুলনা ও বরিশালে নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে বেশি।

টেলিটক এখনো ফোরজি চালু করেনি। থ্রিজিতে ডাউনলোডের গতি চার বিভাগেই নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে কম। কল সংযোগের সময় ও কলড্রপের হারের দিক দিয়ে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই সবার পেছনে তাদের অবস্থান।