• রবিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:০২ রাত

দাম পড়ে যাচ্ছে হুয়াওয়ে ফোনের

  • প্রকাশিত ০২:৩৫ দুপুর মে ২৭, ২০১৯
হুয়াওয়ের পি৩০ প্রো
হুয়াওয়ের পি৩০ প্রো স্মার্টফোন। ছবি: রয়টার্স

যুক্তরাজ্যের অনলাইন কেনাবেচার সাইট মিউজিক ম্যাগপাইয়ে ১ হাজার ১৫০ ডলারে কেনা ফোনটি বিক্রি হচ্ছে ১৩০ ডলারে

ট্রাম্প প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা এবং গুগলের নেওয়া সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে বড় ধরণের ক্ষতির মুখে পড়ছে চীনা প্রযুক্তি কোম্পানি হুয়াওয়ে। বিবিসির একটি খবরে বলা হয় সাম্প্রতিক বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞার কারণে ধসে পড়েছে হুয়াওয়ের পি৩০ প্রোর জনপ্রিয়তা।

অথচ বছরের শুরুতে সেরা ফ্ল্যাগশিপের তকমা পেয়েছিল এই হুয়াওয়ের এই পণ্যটি। আকর্ষনীয় ডিজাইন, লেইকা কোয়াড ক্যামেরা এবং দীর্ঘমেয়াদি ব্যাটারির জন্য অল্প সময়েই গ্রাহকদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় হুয়াওয়ের পি৩০ প্রো।  

তবে হুয়াওয়ের উপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা এবং এই কোম্পানির ফোনগুলোতে গুগলের কিছু সেবা বন্ধ করে দেওয়ার ফলে ১ হাজার ১৫০ ডলার মূল্যের এই ফোন কিছুদিন ব্যাবহারের পর বিক্রি করতে গেলে ১৩০ ডলারের বেশি পাওয়া যাচ্ছে না। 

যুক্তরাজ্যের অনলাইন কেনাবেচার সাইট মিউজিক ম্যাগপাইয়ে  পি৩০ প্রোর জন্য এমনই দাম চাওয়া হচ্ছে বলে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে।

আর হুয়াওয়ের পি২০ ফোনের অবস্থা আরও খারাপ। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়, আগে ব্যবহৃত পি২০ বিক্রি হতো ৩৫৫ মার্কিন ডলারে। তা এখন বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৬৩ ডলারে।  এদিকে ২০১৮ সালের স্যামসাং ব্র্যান্ডের ব্যবহৃত ফ্লাগশিপ ফোনের দাম এখনো পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ ডলারে, যা বেশ সন্তোষজনক।   



 

মিউজিক ম্যাগপাই ওয়েবসাইটে হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো'র মূল্য। ছবি: সংগৃহীত


এদিকে, ফোর্বস ম্যাগাজিনের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রায় ৯০ শতাংশ পড়তির দিকে রয়েছে হুয়াওয়ের এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনের দাম। 

এরই মধ্যে যুক্তরাজ্যভিত্তিক চিপ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এআরএম হুয়াওয়ের সঙ্গে সকল চুক্তি, সেবা এবং সকল ধরণের কার্যক্রম স্থগিত করতে কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছ বলে বিবিসি জানায়।

এসবের প্রেক্ষিতে নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষা এবং ঘুরে দাঁড়াবার প্রয়াসে নিজস্ব অ্যাপস্টোর তৈরির কাজ শুরু করেছে চীনের এই প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি সফটওয়্যার ও নিরাপত্তা আপগ্রেড নিয়েও বিস্তর কার্যক্রম শুরু করেছে।