Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

তথ্যমন্ত্রী: অনলাইন গণমাধ্যমকে শৃঙ্খলায় আনতে কাজ শুরু হয়েছে

'অনুসন্ধানী প্রতিবেদন অনেক ক্ষেত্রে আগের চেয়ে কমে গেছে'

আপডেট : ১৮ মে ২০১৯, ১০:১৮ পিএম

অনলাইন গণমাধ্যমগুলোকে শৃঙ্খলায় আনার জন্য কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

শনিবার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব হলে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল আয়োজিত ‘সাংবাদিকতার নীতিমালা, বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন ও তথ্য অধিকার আইন অবহিতকরণ’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, "দেশে অনলাইন পত্রিকার পাশাপাশি দৈনিক ও টেলিভিশনগুলোর অনলাইন সংস্করণ রয়েছে। অনলাইন মাধ্যমগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনা দরকার এবং সেটার কাজ শুরু হয়েছে এগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আনা হচ্ছে"।

"ইতোমধ্যে আমাদের সংস্থাগুলো কয়েকটি অনলাইন প্রতিবেদন নিয়ে প্রতিবেদন দিয়েছে। আমরা কাজ করছি। যে কেউ একটা অনলাইন খুলে বসল, সে আর পাঁচজনকে কার্ড দিচ্ছে, এভাবে চলতে পারে না", যোগ করেন মন্ত্রী।

তিনি এ ক্ষেত্রে সাংবাদিক ইউনিয়ন ও প্রেস ক্লাবগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, "বস্তুগত উন্নয়ন দিয়ে উন্নত জাতি গঠন সম্ভব নয়। বস্তুগত উন্নয়নের পাশাপাশি উন্নত জাতি গড়তে হবে। স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সাংবাদিকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন"।

প্রেস কাউন্সিলের ক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে জানিয়ে এসময় তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, "আমরা সবাই জানি, প্রেস কাউন্সিলের সেভাবে কোনো ক্ষমতা নেই। কার্যকর ক্ষমতার জন্য তারা আইন সংশোধনের প্রস্তাব দিয়েছে। আমরা খুব শিগগিরই সেটা মন্ত্রিসভায় নেব"।

দেশের স্বাধিকার, স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের আন্দোলনে চট্টগ্রামের সাংবাদিকদের ভূমিকা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, গণমাধ্যম রাষ্ট্র গঠন ও নতুন প্রজন্মের মনন বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

মন্ত্রী বলেন, "অনুসন্ধানী প্রতিবেদন অনেক ক্ষেত্রে আগের চেয়ে কমে গেছে। অথচ এ ধরনের প্রতিবেদন সমাজের তৃতীয় নয়ন খুলে দেয়"।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম ও প্রেস কাউন্সিলের সদস্য মনজুরুল আহসান বুলবুল।

About

Popular Links