Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জলমহাল দখলে আওয়ামী নেতার বাঁধ, ডুবে গেছে শত বিঘা ফসলি জমি

জলমহালে মাছ যেন বের হয়ে যেতে না পারে সে জন্য কালভার্টের মুখে সাময়িক সময়ের জন্য বেড়া দেওয়া হয়েছে। এতে ফসলের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না।

আপডেট : ২৮ মে ২০১৯, ১০:১৩ এএম

বগুড়ার ধুনটে সরকারি জলমহাল দখলে নিতে ফসলি জমির পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। এতে তলিয়ে গেছে শতাধিক বিঘা ফসলি জমি। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে কৃষকেরা ঘুরছেন স্থানীয় ভূমি অফিস, উপজেলা ও জেলা প্রশাসকের দ্বারে দ্বারে। 

কৃষকদের অভিযোগ ও সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ী ইউনিয়নের পাঁচথুপি মৌজার ১৪২০ নম্বর দাগের দুই একর ৬৫ শতক বলিয়াডাঙ্গা জলমহালের ইজারা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। পহেলা বৈশাখ থেকে ওই জলমহলটি টেংড়াখালী মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির নামে ৮০ হাজার টাকায় তিন বছরের জন্য ইজারা নেন স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হাতেম তালুকদার, শাহজাহান আলী, ছইমুদ্দিন, আব্দুস সবুরসহ নয়জন। 

উন্মুক্ত ওই জলমহালটি ইজারা নেওয়ার পর পানি নিষ্কাশনের জন্য কালভার্টের দুই পাশের মুখ বাঁধ ও বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে বৃষ্টির পানিতে উন্মুক্ত জলমহালের আশপাশের শতাধিক বিঘা জমির ধান তলিয়ে যায়,আবদ্ধ পানি নিষ্কাশনের সুযোগ না থাকায় পঁচতে শুরু করে ধান গাছ। 

পাঁচথুপি গ্রামের কৃষক আমজাদ মন্ডল, নান্নু খন্দকার ও আতিকুর রহমান জানান, প্রভাবশালী ব্যক্তিরা পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করে কৃষকের মালিকানাধীন ৩০ একর ফসলি জমিতে অবৈধভাবে মাছ চাষ করছে। ওই উন্মুক্ত জলাশয়ের পানিতে কৃষকের বোরো ধান পঁচে নষ্ট হয়ে গেছে। এ ছাড়া ফসলি জমি পানির নিচে নিমজ্জিত থাকায় পরবর্তী আমন মৌসুমেও ক্ষতির আশংকা করছেন কৃষকেরা। 

পরিস্থিতি বিবেচনা করে স্থানীয় কৃষকরা উন্মুক্ত ওই জলাশয়ের ইজারা বাতিল এবং ফসলি জমির পানি নিষ্কাশনের পথ খুলে দিতে ধুনট ভূমি অফিস, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, বগুড়া জেলা প্রশাসকের দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন। 

এ বিষয়ে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হাতেম তালুকদার বলেন, “জলমহালে মাছ যেন বের হয়ে যেতে না পারে সে জন্য কালভার্টের মুখে সাময়িক সময়ের জন্য বেড়া দেওয়া হয়েছে। এতে ফসলের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না।”

কৃষকদের অভিযোগ প্রসঙ্গে ধুনট উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) জিন্নাত রেহেনা বলেন, “এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।”

About

Popular Links