Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

১২ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ: মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দুই মামলা

তার মোবাইল ফোন ও কম্পিউটার তল্লাশি করে একাধিক পর্নোগ্রাফী ভিডিও পাওয়া গেছে। এমনকি তিনি নিজেও তার কাছে পড়তে আসা কোনো কোনো ছাত্রীর ছবির মাথার অংশ পর্নোগ্রাফি ভিডিওর সাথে সংযুক্ত করার মাধ্যমে ব্লাকমেইল করে একাধিকবার যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ করেছেন।

আপডেট : ০৫ জুলাই ২০১৯, ০৯:৫৬ পিএম

১২ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার বাইতুল হুদা ক্যাডেট মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো. আল আমিনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

৪ জুলাই,বৃহস্পতিবার রাতে ফতুল্লা থানায় নির্যাতনের শিকার এক ছাত্রীর পরিবার নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি এবং পর্নোগ্রাফি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অপর একটি মামলা করে র‌্যাব। 

অধ্যক্ষ আল আমিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, মাদ্রাসায় বিভিন্ন সময় পড়তে আসা ছাত্রীদের বিভিন্ন কৌশলে নিজের রুমে নিয়ে যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণ করেছেন। ২০১৮ সাল থেকে এ পর্যন্ত মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণির ১২ জন ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছেন। এ ছাড়া অনেক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানিও করেছেন। তার মোবাইল ফোন ও কম্পিউটার তল্লাশি করে একাধিক পর্নোগ্রাফী ভিডিও পাওয়া গেছে। এমনকি তিনি নিজেও তার কাছে পড়তে আসা কোনো কোনো ছাত্রীর ছবির মাথার অংশ পর্নোগ্রাফি ভিডিওর সাথে সংযুক্ত করার মাধ্যমে ব্লাকমেইল করে একাধিকবার যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ করেছেন।

ফতুল্লা থানার ওসি আসলাম হোসেন এ সকল তথ্য নিশ্চিত করে বলেন,“প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অধ্যক্ষ আল আমিন তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ স্বীকার করেছেন।তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত দুই মামলায় ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে অধ্যক্ষ আল আমিনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।”

উল্লেখ্য,৪ জুলাই, বৃহস্পতিবার ১২ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লার বাইতুল হুদা ক্যাডেট মাদ্রাসা অধ্যক্ষকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব)।  

About

Popular Links