Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ওয়াসার পানিতে ব্যাকটেরিয়া-মলের জীবানু, রোধে পদক্ষেপ জানতে চায় হাইকোর্ট

৩ জুলাই ঢাকা ওয়াসার ১০টি মডস জোনের মধ্যে চারটি জোন এবং সায়েদাবাদ ও চাঁদনিঘাট এলাকা থেকে সংগৃহীত আটটি নমুনা পানিতে দূষণের তথ্য প্রতিবেদন আকারে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ে দাখিল করা হয়।

আপডেট : ০৭ জুলাই ২০১৯, ০৬:৫৭ পিএম

ঢাকা ওয়াসার ১০টি মডস জোনের মধ্যে চারটি এবং সায়েদাবাদ ও চাঁদনিঘাট এলাকা থেকে সংগৃহীত আটটি নমুনা পানিতে দূষণের তথ্য পরীক্ষায় উঠে আসার পর পানি পরিশোধনে নেওয়া পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে গৃহীত পদক্ষেপগুলো প্রতিবেদন আকারে আদালতকে জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা ওয়াসার কয়েকটি নমুনা পানি পরীক্ষার প্রতিবেদন দাখিলের পর আজ রোববার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনটি দাখিল করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু। এসময় রিটকারী আইনজীবী মো. তানভীর আহমেদ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ৩ জুলাই ঢাকা ওয়াসার ১০টি মডস জোনের মধ্যে চারটি জোন এবং সায়েদাবাদ ও চাঁদনিঘাট এলাকা থেকে সংগৃহীত আটটি নমুনা পানিতে দূষণের তথ্য প্রতিবেদন আকারে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ে দাখিল করা হয়।

প্রতিবেদনে ওইসব এলাকার পানিতে ব্যাকটেরিয়া, উচ্চ মাত্রার অ্যামোনিয়া পাওয়া গেছে এবং কিছু কিছু নমুনাতে মলের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে বলে তথ্য উঠে আসে।

গত ২১ মে এক আদেশে ঢাকা ওয়াসার পানির উৎস, ১০টি বিতরণ জোন, গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতে ১০টি ঝুঁকিপূর্ণ স্থান এবং দৈবচয়নের ভিত্তিতে ১০টি স্থান থেকে নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট।


About

Popular Links