Friday, May 31, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

খুলনা ও লক্ষ্মীপুরে ডেঙ্গুতে শিশুসহ ২জনের মৃত্যু

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম জানায়, ১ জানুয়ারি থেকে এপর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা সর্বমোট ৪৩ হাজার ২৭১ জন। বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন মোট ৩৫ হাজার ২২৫ জন

আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০১৯, ০১:৩৮ পিএম

সারাদেশে ডেঙ্গুর ভয়াবহতার মধ্যে এবার খুলনা ও লক্ষ্মীপুরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (১৩ আগস্ট) রাতে লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে ডেঙ্গু আক্রান্ত চার বছরের এক শিশুকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। শিশু পরশ কমলনগর উপজেলা চরজাঙ্গালীয়ার দাসপাড়া এলাকার কামরুজ্জামানের ছেলে।

পরশের খালু মো. ইব্রাহিম জানান, শনিবার সকাল থেকে পরশের জ্বর দেখা দেয়। দুই দিনেও জ্বর ভালো না হওয়ায় সোমবার বিকালে পরীক্ষায় ডেঙ্গু ধরা পড়ে। পরে ডা. মোরশেদ আলম হিরু নামে একজন শিশু বিশেষজ্ঞকে দেখানো হলে তিনি পরশকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু নোয়াখালীতে নেয়ার পথে রাত ১০টার দিকে সে মারা যায়।

আবার, ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাসেল (৩২) নামে এক ব্যক্তি সোমবার মধ্যরাতে মারা গেছে। চিকিৎসকরা জানান, নিহত রাসেলের বাড়ি গোপালগঞ্জে।

খুলনা সিভিল সার্জন আব্দুর রাজ্জাক জানান, দুদিন আগে ডেঙ্গুজ্বর নিয়ে রাসেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

প্রসঙ্গত, ঈদের দিন পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় দুই হাজার ৯৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত নতুন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৮৪২ জনই ডেঙ্গু প্রাদুর্ভাবের মূলকেন্দ্র রাজধানীতে এডিস মশার কামড় থেকে এরোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম জানায়, ১ জানুয়ারি থেকে এপর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা সর্বমোট ৪৩ হাজার ২৭১ জন। বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন মোট ৩৫ হাজার ২২৫ জন।

বর্তমানে ঢাকায় ৪০টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা চার হাজার ২০২ জন এবং ঢাকার বাইরে অন্যান্য বিভাগে মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা তিন হাজার ৮০৪ জন।

সরকারি হিসেবে এপর্যন্ত ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪০ জন। তবে বেসরকারি অনুমান বলছে মৃতের সংখ্যা আরও অনেক বেশি।

About

Popular Links