Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নাব্য সংকট: কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

গত সাত দিন ধরে পদ্মায় পানি বাড়তে শুরু করেছে। স্রোতের গতিবেগও বেড়েছে

আপডেট : ২৯ আগস্ট ২০১৯, ০৬:০৪ পিএম

পদ্মা নদীতে পানি বাড়তে শুরু করলেও মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ও মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া নৌপথের লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে নাব্য সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে বুধবার (২৮ আগস্ট) সন্ধ্যার পরে সারারাত ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সীমিত আকারে যানবাহন নিয়ে চলছে ৫টি ছোট ফেরি। 

বিআইডব্লিউটিএ ও বিআইডব্লিউটিসি কাঁঠালবাড়ি ঘাট সূত্র জানায়, গত সাত দিন ধরে পদ্মায় পানি বাড়তে শুরু করেছে। স্রোতের গতিবেগও বেড়েছে। তীব্র স্রোতের সঙ্গে ভেসে আসা পলি কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌপথের লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের প্রবেশমুখে জমা হচ্ছে। যে কারণে গত সোমবার থেকে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছিল। দুর্ঘটনা এড়াতে ওইদিন থেকেই অধিকাংশ ফেরি সন্ধ্যার পর থেকে বন্ধ রাখা হয়।

খুলনা থেকে ছেড়ে আসা পণ্যবাহী ট্রাকের চালক ইলিয়াস আহাম্মেদ বলেন, “গত রবিবার ঘাটে এসেছি। এখনও ফেরিতে উঠতে পারছি না। ঘাটের লোকদের কাছে কিছু জানতে চাইলে তারা বলে ফেরি চলে না। পরিস্থিতি ঠিক হলে ফেরিতে গাড়ি তোলা হবে। টার্মিনালে এভাবে দাঁড়িয়ে থাকা দুর্ভোগের।”

বরিশাল থেকে আসা আরেক ট্রাকচালক মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, “ঘাটে ফেরি ভিড়লে প্রথমেই মাইক্রোবাস, যাত্রীবাহী বাস ওঠানো হয়। একটি ট্রাকও তোলা হয় না। বুঝতে পারছি যে ফেরি কম চলে তবুও যদি ছেড়ে যাওয়া প্রতিটি ফেরিতে তিনটি করে ট্রাক তোলা হলে পর্যায়ক্রমে সব ট্রাকই পারাপার করা সম্ভব।”

বিআইডব্লিউটিসি কাঁঠালবাড়ি ঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাম হোসেন বলেন, “আমরাও বিপদের মধ্যে আছি। ঠিকমতো ফেরি চালাতে পারছি না। বছরের এই সময়টাতে এমন পরিস্থিতি দেখা দেয়। পদ্মায় পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চ্যানেলে পলি এসে জমা হয়ে ফেরিগুলোকে ডুবোচরে আটকে দেয়। দুর্ঘটনা এড়াতে তাই রাতে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়।”

বিআইডব্লিউটিএর মেরিন কর্মকর্তা আহমদ আলী বলেন, লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের চ্যানেলে নাব্য সংকট রয়েছে। আমরা সংকট নিরসণে কাজ করছি। আশা করছি দুই-এক দিনের মধ্যেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

About

Popular Links