Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রদের যৌন নির্যাতনের অভিযোগ

প্রতিরাতেই কোনো না কোনো শিশু শিক্ষার্থীকে ডেকে ধর্ষণ করতেন তিনি

আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৩৩ পিএম

জয়পুরহাট শহরের আরাম নগর হাফেজিয়া মাদ্রসার এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রদের যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। 

রবিবার (১ সেপ্টেম্বর) যৌন নির্যাতনের শিকার এক শিক্ষার্থীর বাবা জয়পুরহাট থানায় ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত মাদ্রাসা শিক্ষক তার অপকর্মের খবর জানাজানি হওয়ার পর মাদ্রাসা বন্ধ করে পালিয়ে গেছেন। 

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, করেন,জয়পুরহাট শহরের আরাম নগর এলাকার হাফেজিয়া আবাসিক মাদ্রাসায় লেখাপড়া করতো ১৪/১৫ জন শিশু। এদের সবাই জেলা শহরসহ আশপাশের বিভিন্ন অঞ্চলের দরিদ্র পরিবারের সন্তান। এই মাদ্রাসার শিক্ষক আইয়ুব আলী প্রতিরাতে শিক্ষার্থীদের আরবি শেখাতেন। পরে ঘুমানোর আগে কোনো একজন শিশু শিক্ষার্থীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করতেন। 

রবিবার উদ্ধার হওয়া শিশুটিকেও তিনি ভয় দেখিয়ে গত এক সপ্তাহ ধরে ধর্ষণ করেছেন। একপর্যায়ে প্রচণ্ড অসুস্থ হয়ে পড়ায় মাদ্রাসা থেকে পালিয়ে বাড়িতে এসে ঘটনাটি তার বাসার লোককে জানায়। পরে ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীকে গুরুতর অবস্থায় জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মুবিনুল ইসলাম বলেন, "আলামত দেখার পর  এটি যে, বিকৃত যৌন নির্যাতন এতে কোনও সন্দেহ নাই।"

এদিকে এই ঘটনায় এলাকার মানুষ বিক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা জানান, এমন ঘটনায় এলাকার আলেম সমাজ বিব্রত। তারা দ্রুত ওই মাদ্রাসা শিক্ষককে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।

জয়পুরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রায়হান হোসেন এই ব্যাপারে ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ ঘটনার সত্যতা খুঁজে পেয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষককে দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।" 

About

Popular Links