Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী-প্রেমিকার সাজা

লাল মিয়ার স্ত্রীর পাখি বেগমের সঙ্গে তিন বছর ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল প্রতিবেশী আলো খানের

আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৫৮ পিএম

ঝালকাঠির কাঠাঁলিয়া উপজেলায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে আলো খান নামের এক ব্যক্তিকে আমৃত্যু সশ্রম কারাদণ্ড ও তার প্রেমিকা পাখি বেগমকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি পাখি বেগমকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।  

রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঝালকাঠির জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ গাজী রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।  

দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আলো খান (৪৫) ওরফে আলম খান উপজেলার দক্ষিণ চেচরী গ্রামের জেলেম খানের ছেলে এবং পাখি বেগম (৪০) একই এলাকার লাল মিয়ার স্ত্রী।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আবদুল মান্নান রসুল এবং আসামিপক্ষে ছিলেন খায়রুল আলম সরফরাজ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, লাল মিয়ার স্ত্রীর পাখি বেগমের সঙ্গে তিন বছর ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল প্রতিবেশী আলো খানের। এ ঘটনার জের ধরে ২০১৭ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি রাতে স্ত্রী বিউটি বেগমের (৪০) সঙ্গে তর্ক-বির্তকের এক পর্যায়ে আলো খান তাকে গলাটিপে হত্যা করেন। পরে বাড়ির পাশের একটি কচুক্ষেতে স্ত্রীর লাশ ফেলে দেন তিনি। 

পরে এ ঘটনায় নিহত বিউটি বেগমের ভাই ফোরকান বাদী হয়ে ৬ ফেব্রুয়ারি আলো খান ও তার প্রেমিকা পাখি বেগমকে আসামি করে কাঠাঁলিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই বছরের ১০ অক্টোবর পুলিশ পরিদর্শক মো. ইউনুস মিয়া তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। 

দীর্ঘ শুনানি ও ১২ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের পর দোষী প্রমাণিত হওয়ায় আদালত আলো খানকে আমৃত্যু যাবজ্জীবন ও পাখি বেগমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেন। আসামিদের উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করেন বিচারক।

About

Popular Links