Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পা দিয়ে লিখেই জেএসসি জয় মানিকের

দুই পা দিয়ে লিখে পেয়েছে জিপিএ ৫ পেয়েছে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী জছি মিঞা মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মানিক

আপডেট : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:৩২ পিএম

জন্মগত ভাবে দুই হাত নেই মানিকের। তবে এ শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে দুই পা দিয়ে লিখে জয় করেছে সে। কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী জছি মিঞা মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে বলে তার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবেদ আলী খন্দকার নিশ্চিত করেছেন।

প্রধান শিক্ষক আবেদ আলী খন্দকার বলেন, “শারীরিক প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও মানিক অসাধারণ শিক্ষার্থী। সে আমাদের বিদ্যালয়ের সম্পদ। সে ডান পায়ে বুড়ো আঙ্গুলের ফাঁকে কলম ধরে লিখে আর বাম পা দিয়ে প্রশ্ন ও খাতার পাতা উল্টাতে পারে। এভাবে পরীক্ষা দিয়ে সে জিপিএ-৫ অর্জন করেছে।”

শারীরিক প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পা দিয়ে লিখে সফলতা অর্জনের পর অত্যন্ত খুশি মানিক রহমান বলেন, “আমার দুটো হাত না থাকলেও আল্লাহ রহমতে পা দিয়ে লিখে এবারের জেএসসি পরীক্ষায়সকল বিষয়ে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছি। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন যেন সামনে আরও ভালো করতে পারি।”

ভবিষ্যতে সফট ওয়্যারইঞ্জিনিয়ারহওয়ার স্বপ্ন রয়েছে জানিয়ে মানিক রহমান আরও বলেন, “এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় ভাল রেজাল্ট করে প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার ইচ্ছা রয়েছে। বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণ করে যেন তাদের পাশে দাঁড়াতে পারি সেই কামনা করি।”   

ছেলের এমন ফলাফলে খুশিতে প্রায় কেঁদেই ফেলেন মানিকের বাবা মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, “আমার দুই ছেলে। মানিক বড়। ছোট ছেলে মাহীম ২য় শ্রেণীতে পড়ে। বড় ছেলে মানিক প্রতিবন্ধী এটা আমরা মনে করি না। জন্ম থেকেই তার দুটো হাত না থাকলেও ছোট থেকে মানিকের মা ও আমি তাকে পা দিয়ে লেখার অভ্যাস করিয়েছি। এজন্য আমার স্ত্রী মরিয়ম বেগমের অবদানটাই অনেক বেশি। ওর জন্য আমরা গর্ব বোধ করি।’  

মানিক রহমানের দুটো হাত না থাকলেও পা দিয়েই মোবাইলে অপারেট করাসহ কম্পিউটার ও ইন্টারনেট ব্যবহারে পারদর্শী বলে জানান বাবা মিজানুর রহমান।

About

Popular Links