Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে হিন্দি গানের সাথে অশ্লীল নাচ!

শহীদ মিনারের পাশে তৈরি এ মঞ্চের পাশেই রাখা ছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চারনেতার ছবি

আপডেট : ০৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১:২৯ এএম

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলায় ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় কনসার্টের নামে হিন্দি ও ভোজপুরি গানের সাথে অশ্লীল নাচ পরিবেশনের অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় উপজেলার পৌর এলাকার শহীদ মিনারের পাশে মঞ্চ তৈরি করে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উপজেলা ছাত্রলীগ। হিন্দি ও ভোজপুরি গানের সঙ্গে নাচসহ অনুষ্ঠানটি চলে মধ্যরাত পর্যন্ত।

জানা গেছে, উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে আয়োজিত আলোচনাসভা ও কনসার্টের উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো.জাফর আলী। 

অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক ছিলেন কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক এমএ মতিন। তবে তারা আলোচনাসভা শেষে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন। পরে বর্তমান ও সাবেক ছাত্রনেতাদের উপস্থিতিতে কনসার্টের নামে কিছু দেশীয় গান পরিবেশনের পর শুরু হয় হিন্দি ও ভোজপুরি গানের সাথে অশ্লীল নাচ। মধ্যরাত পর্যন্ত চলে এসব পরিবেশনা। মঞ্চের ঠিক পাশেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চারনেতা ও শেখ রাসেলের ছবিও ছিল। 

অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত দর্শকসারির কয়েকজন জানান, একটি ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এধরনের পরিবেশনা খুবই দুঃখজনক। এতে সাধারণ দর্শক ও শ্রোতারা হতাশ। তারা দেশীয় সংস্কৃতি পরিবেশন করলে সংগঠনের মর্যাদা আরও বাড়তো।

দেশের ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন হিসেবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শহীদ মিনারের পাশে স্থাপিত মঞ্চে এমন ভিন্ন সংস্কৃতির গান ও অশালীন নৃত্য পরিবেশনায় অনেকে ক্ষোভও প্রকাশ করেন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক এমএ মতিনকে একাধিকবার কল দেওয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের আয়োজক ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ উলিপুর শাখার সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রুবেলকে কয়েকবার ফোনে চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করে ফোন বন্ধ করে দেন। এছাড়া ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্তে কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অব্যাহতি দেওয়ায় এবিষয়ে জেলা নেতৃবৃন্দের কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

এপ্রসঙ্গে উলিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন মন্টু বলেন, “আমি অনুষ্ঠানে ছিলাম না। খোঁজ নিয়ে দেখবো কী ধরনের গান ও নাচ পরিবেশন করা হয়েছে।”

About

Popular Links