Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

দেশে পৌঁছেছে নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ‘ওমর ফারুক’ ও ‘আবু উবাইদাহ’

শত্রু বিমান, জাহাজ ও স্থাপনায় আঘাত আনার পূর্ণ ক্ষমতা রয়েছে এই দু'টি যুদ্ধজাহাজের

আপডেট : ০৯ জানুয়ারি ২০২০, ১০:০০ পিএম

দেশে পৌঁছেছে চীনে নির্মিত বাংলাদেশ নৌবাহিনী যুদ্ধজাহাজ "ওমর ফারুক" ও "আবু উবাইদাহ"। বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি)বাগেরহাটের মোংলা নেভাল জেটিতে যুদ্ধজাহাজ দু'টি নোঙর করে বলে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এসময় কমান্ডার খুলনা নৌ অঞ্চল রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জাহাজ দু'টিকে স্বাগত জানান। এছাড়াও জাহাজ দু'টির আগমন উপলক্ষে নেভাল জেটিতে নৌবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও নাবিকরা উপস্থিত ছিলেন।

আইএসপিআর জানায়, আধুনিক এ যুদ্ধজাহাজ দু'টির প্রতিটি দৈর্ঘ্যে ১১২ মিটার এবং প্রস্থে ১২.৪ মিটার। যুদ্ধজাহাজ দু'টি ঘন্টায় সর্বোচ্চ ২৪ নটিক্যাল মাইল গতিতে চলতে সক্ষম। প্রতিটি জাহাজ বিভিন্ন আধুনিক যুদ্ধসরঞ্জামে সুসজ্জিত। জাহাজ দুটিতে রয়েছে আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন কামান, ভূমি থেকে আকাশে ও ভূমি থেকে ভূমিতে উৎক্ষেপণযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র, অত্যাধুনিক সারভাইলেন্স র‌্যাডার, ফায়ার কন্ট্রোল সিস্টেম, সাবমেরিন বিধ্বংসী রকেট, র‌্যাডার জ্যামিং সিস্টেমসহ বিভিন্ন ধরণের যুদ্ধ সরঞ্জামাদি। সার্বিকভাবে শত্রু বিমান, জাহাজ ও স্থাপনায় আঘাত আনার পূর্ণ ক্ষমতা রয়েছে এই দু’টি জাহাজের।

এছাড়াও হেলিকপ্টার অবতরণ ও উড্ডয়নের জন্য ডেক ল্যান্ডিংসহ জাহাজে সমুদ্রে উদ্ধার তৎপরতা, সন্ত্রাস ও জলদস্যু দমন এবং চোরাচালানবিরোধী নানাবিধ অপারেশন পরিচালনার সক্ষমতা রয়েছে। জাহাজ দু’টি দেশের জলসীমার সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি দুর্যোগকালীন জরুরি উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা, অবৈধ মৎস্য নিধন, সমুদ্র ও উপকূলীয় এলাকায় মানবপাচার ও চোরাচালান প্রতিরোধ, জলদস্যুতা দমন, জেলেদের নিরাপত্তা বিধানসহ বর্তমান সরকারের ব্লু-ইকোনমির বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

About

Popular Links