Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রেমিকা কর্তৃক যৌনাঙ্গ কাটায় প্রেমিকের মৃত্যু

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পরকীয়ায় জড়িয়ে গোপন অভিসারের সময় প্রেমিকার হাতে পুরুষাঙ্গ হারিয়ে হাবিবুর রহমান (৩৫) নামের এক যুবকের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয়েছে।

আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৪০ এএম

বুধবার (৮ আগষ্ট) দুপুরে দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ দারা খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

এর আগে মঙ্গলবার (৭ আগষ্ট) বিকেলে উপজেলার দৌলতখালী দাড়েরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত প্রেমিকা মাছুরা খাতুনকে (৩৬) রাতেই আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আলারদর্গা শিল্প এলাকার মৃত সাইদ মাস্টারের ছেলে হাবিবুর রহমান ও দৌলতখালী দাড়েরপাড়া এলাকার মৃত ইয়ার আলীর মেয়ে মাছুরা খাতুনের মধ্যে বেশ কিছুদিন আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার দৌলতখালী দাড়েরপাড়া গ্রামে মাছুরা খাতুন তার বোনের বাড়িতে হাবিবুরকে ডেকে নেয়। পরে মাছুরা ও হাবিবুর ওই ফাঁকা বাড়িতে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে মাছুরা প্রেমিক হাবিবুরের পুরুষাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে দেয়। এ সময় হাবিবুরের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে দ্রুত কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৮ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে নেয়। 

স্থানীয় সূত্র জানায়, মাছুরা খাতুন দীর্ঘদিন ধরে দৌলতখালী দাড়েরপাড়া গ্রামে তার বোনের বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন।

দৌলতপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত মাছুরা খাতুনকে আটক করা হয়েছে। ময়না তদন্তের পর মামলা গ্রহণ করা হবে। 

দৌলতপুর থানারভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ দারা খান জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পেরেছি তাদের মধ্যে একটি পরোকিয়ার সম্পর্ক ছিল। অভিযুক্ত নারীকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


About

Popular Links